শিরোনাম

অপরাধীদের পরিবর্তে ধর্ষিতাকেই কাঠগড়ায় তুললো পুলিশ!!!

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২০ ২:৪৩:১৪ অপরাহ্ণ
অপরাধীদের পরিবর্তে ধর্ষিতাকেই কাঠগড়ায় তুললো পুলিশ!!!
অপরাধীদের পরিবর্তে ধর্ষিতাকেই কাঠগড়ায় তুললো পুলিশ!!!

এ যেন উলট পুরাণ। গণধর্ষণের শিকার এক হতভাগ্য মহিলার পাশে না দাঁড়িয়ে উল্টো এই ঘটনার জন্য তাকেই দায়ী করলো পুলিশ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানে। লাহোরে নিজের সন্তানের সামনেই পাশবিক অত্যাচারের শিকার হন ওই মহিলা। পুলিশের দাবি, ওই মহিলার রাত দেড়টার সময় একা বের হওয়া উচিৎ হয়নি। এরপরই পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে দেশের মানুষ। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়,  নির্যাতিতা তার বয়ানে জানিয়েছেন, তিনি গাড়ি করে ফিরছিলেন।

গাড়ির তেল ফুরিয়ে যাওয়ায় পুলিশের কাছে সাহায্য প্রার্থনা করেন তিনি। পুলিশ অকুস্থলে পৌঁছানোর আগেই গাড়ির কাঁচ ভেঙে তাকে গাড়ি থেকে বের করে আনে দুই দুষ্কৃতী। তারপর বাকিরা তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে অকথ্য অত্যাচার চালায়। মায়ের ওপর এই আক্রমণ দেখে ভয়ে কুঁকড়ে যায় গাড়িতে থাকা তাঁর দুই সন্তান। এই নৃশংস ঘটনার পর গোটা দেশ যখন অপরাধীদের মৃত্যুদণ্ড চাইছে তখন পুলিশের তদন্তকারী অফিসার ওমর শেখ দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য করে বসেন।

তিনি বলেন, ‘ একজন মহিলার জানা উচিৎ অতো রাতে রাস্তায় বেরোনো উচিত নয়। পাকিস্তানের সমাজ তাদের মা-বোনেদের রাতের বেলা একা রাস্তায় বেরোনো সমর্থন করে না। ওই মহিলার উচিৎ ছিল বাইরে বেরোনোর আগে দেখে নেয়া গাড়িতে পর্যাপ্ত তেল আছে কিনা। ‘ নির্যাতিতা ফ্রান্সের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। পুলিশ অফিসারের এই মন্তব্যের পরেই গোটা পাকিস্তান থেকে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। অনেকেই বলছেন, যখনই এই ধরনের কোনো ঘটনা সামনে আসে তখনই অপরাধীদের ছেড়ে অভিযোগকারীদের কাঠগড়ায় তোলে পুলিশ। যে মহিলারা অভিযোগ জানাতে যান তাদেরকেই নানা প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় । যা সমর্থনযোগ্য নয় বলে মনে করেন দেশের মানবাধিকার মন্ত্রী শিরিন মানজারি। এর পাশাপাশি ওমর শেখের পদত্যাগ দাবি করেছেন তিনি।
প্রসঙ্গত, এই ঘটনার একদিন আগেই করাচিতে পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয় । পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান টুইটারে জানিয়েছেন, তিনি পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছেন। দ্রুত অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে যাতে কড়া শাস্তি দেয়া যায় সেই নির্দেশ দেয়া হয়েছে পুলিশকে। এই ধরনের পাশবিক , নারকীয় ঘটনাকে তিনি যে কোনোভাবেই সমর্থন করেন না তাও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন ইমরান।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর