শিরোনাম

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কারাগারে

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, জুন ২৪, ২০২১ ১০:৩৪:০৬ অপরাহ্ণ
আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কারাগারে
আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কারাগারে

নরসিংদীর মাধবদীতে আওয়ামী লীগের সভা শেষে দুই পক্ষের সংঘর্ষে দুজন গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় উভয় পক্ষই পাল্টাপাল্টি মামলা করেছিল। এর মধ্যে একটি মামলার আসামি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আনোয়ার হোসেন বৃহস্পতিবার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আওয়ামী লীগের স্থানীয় কয়েকজন নেতা-কর্মী বলেন, দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপনের লক্ষ্যে ১৬ জুন বিকেলে মাধবদী শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে নবগঠিত থানা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক জি এম তালেব হোসেন ও সদস্যসচিব মোহাম্মদ আলী। সভা চলাকালে মাধবদী শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেন প্রধান দলবল নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। এ সময় তাঁকে ওই সভায় আমন্ত্রণ না করায় তিনি হইচই করেন। একপর্যায়ে সেখান থেকে বেরিয়ে পৌরসভা মোড়ে তিনি তাঁর পক্ষের লোকজন নিয়ে অবস্থান নেন। পরে এ হামলার ঘটনার ঘটে।

এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হন মাধবদী পৌরসভার সাবেক কমিশনার ও সদর থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. জাকারিয়া (৩৯) ও মাধবদীর নূরালাপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্যসচিব আবুল কালাম (৩০)। গুলিবিদ্ধ দুজনই মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেন প্রধানের প্রতিপক্ষের সমর্থক হিসেবে পরিচিত। এ ঘটনায় ১৮ জুন ভোরে মাধবদী থানায় উভয় পক্ষই পাল্টাপাল্টি মামলা করেন।

মাধবদী থানার পুলিশ বলছে, দুইজন গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেনকে প্রধান আসামি করে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেন গুলিবিদ্ধ জাকারিয়ার বড় ভাই নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আনোয়ার হোসেন। অন্যদিকে মেয়র পক্ষের কর্মী ও পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা মোজাম্মেল মিয়া বাদী হয়ে গুলিবিদ্ধ জাকারিয়াকে প্রধান আসামি করে সাতজনের নামে আরও একটি মামলা করেন। ওই মামলায় আনোয়ার হোসেনকেও আসামি করা হয়।

জানতে চাইলে মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান বলেন, আনোয়ার হোসেন নরসিংদীর মাধবদীর আমলি আদালতে আত্মসমর্পণ করে আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন করেছিলেন। আদালত তাঁর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জি এম তালেব হোসেন জানান, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন দুপুরে আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইতে গিয়েছিলেন। কিন্তু আদালত তাঁকে জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us