শিরোনাম

আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে বিয়ে করেছি,পরিবার পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছে

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, মে ৪, ২০২১ ৮:০৪:৩৯ অপরাহ্ণ
আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে বিয়ে করেছি,পরিবার পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছে
আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে বিয়ে করেছি,পরিবার পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছে

মাদারীপুরের খালিয়া উপজেলার পাল পাড়ায় ইউনিয়নের মুসলিম ধর্মের এক যুবকের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে করার ‘অপরাধে’ এক কিশোরীকে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার পরিবারের বিরুদ্ধে।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায়, খালিয়া পাল পাড়ার সনাতন ধর্মাবলম্বী এক কিশোরীর (১৭) সঙ্গে প্রতিবেশী ইসলাম ধর্মাবলম্বী আবু সাঈদের (২৩) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আবু সাঈদ একই এলাকার আবদুল জলিল শেখের ছেলে। গত ছয় মাস আগে আবু সাঈদ এবং ওই কিশোরী পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে রাজৈর থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে। উদ্ধারের পর কিশোরীকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর এবং আবু সাঈদকে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

আবু সাঈদ  ওই কিশোরীকে নিয়ে আবার পালিয়ে যায়।এক মাস পর ঢাকার আশুলিয়া থেকে পুলিশ তাদেরকে আটক করে পুলিশ।বাড়িতে আনার পর প্রায় ১০ দিন তার পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীক নির্যাতন চালায় পরিবারের সদস্যরা।

ওই কিশোরী বলেন, ‘আবু সাঈদের সঙ্গে আমার প্রায় সাড়ে তিন বছরের সম্পর্ক। আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে তাকে বিয়ে করেছি। আমাকে পরিবারের লোকজন ধরে এনে দুই পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীকভাবে নির্যাতন করে।’

রাজৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনিসুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। মেয়েটি নাবালিকা এবং তার বাব-মার কাছেই আছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us