শিরোনাম

আয়ানকে গুম করতে ছয় টুকরো করে ফেলে দেয়া হয় বেড়িবাঁধে

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, নভেম্বর ২৫, ২০২২ ৬:৩১:৩১ অপরাহ্ণ

১০ দিন আগে মুক্তি পণ আদায় করতে অপহরণ করা হয় সাত বছরের শিশু আলিনা ইসলাম আয়ানকে। এ সময় চিৎকার করায় শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় তাকে। পরে তার লাশ গুম করতে ছয় টুকরো করে ফেলে দেয়া হয় বেড়িবাঁধে।

পিবিআই চট্টগ্রাম মেট্রোর পুলিশ সুপার নাঈমা সুলতানা বলেন, মুক্তি পণ আদায় করতে গত ১৫ নভেম্বর শিশু আয়ানকে অপহরণ করে আবির। তবে আয়ান চিৎকার করায় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে লাশকে ছয় টুকরো করে দুটি ব্যাগ ভর্তি করে বেড়িবাঁধ এলাকায় নদীর পাশে ফেলে রাখ হয়। ওই শিশুর নিখোঁজের পর আশপাশের সিসিটিভি’র ফুটেজ পর্যালোচনা করে আবিরকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই শিশুর খণ্ডিত লাশ উদ্ধার করা হয়। জব্দ করা হয় হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা বটি এবং এন্টিকাটার।

এ ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে ঘটনার অভিযুক্ত আবির আলীকে গ্রেফতার করে খুনের রহস্য উম্মোচন করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার ইপিজেড এলাকার আলী রোডের বেড়িবাঁধ এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ নভেম্বর ইপিজেড থানাধীন বন্দরটিলা এলাকায় আরবি পড়তে গিয়ে নিখোঁজ হন আয়ান। এ ঘটনার পর ইপিজেড থানায় সাধারণ ডায়েরী করে তার বাবা সোহেল রানা।

Spread the love
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us