শিরোনাম

উলাপাড়ায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, মে ২৯, ২০২১ ১১:২০:১৩ পূর্বাহ্ণ
উলাপাড়ায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা
উলাপাড়ায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা
মির্জা হুমায়ুন,জেলা(সিরাজগঞ্জ)সংবাদদাতাঃ
সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার মাঝিপাড়া গ্রামে গত শুক্রবার সকালে যৌতুকের দাবি পূরণ করতে না পারায় পারভীন খাতুন (২৫) নামের এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযোগকারি গৃহবধূর স্বামী নাঈম হোসেন তার স্ত্রীকে হত্যা করার চেষ্টা করলে প্রতিবেশিদের প্রতিরোধের মুখে স্ত্রী পারভীন রক্ষা পেয়েছেন।
পারভীন বানিয়াকৈড় গ্রামের মৃত গোলবার হোসেনের মেয়ে। গোলবার হোসেন পারভীনকে ২ বছর বয়সে রেখে মারা যান। বাবা ইন্তেকালের পর পারভীনের মায়ের অন্যত্র বিয়ে হয়। পরে চাচা সোলায়মান হোসেন পারভীনকে প্রতিপালন করে বিয়ে দেন।
 নির্যাতিত গৃহবধু পারভীন খাতুন অভিযোগ করেন, ৩ বছর আগে বাঙ্গালা ইউনিয়নের মাঝিপাড়া গ্রামের হাসান আলীর ছেলে নাঈম হোসেনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। নাঈম তার খালাতো ভাই। বিয়ের সময় যৌতুক হিসেবে নগদ ১ লাখ টাকা ও ৮ আনা সোনার গহনা দেওয়া হয় তার স্বামীকে। কিন্তু বিয়ের কিছুদিন পর থেকে তার স্বামী ও স্বামীর পরিবার পারভীন খাতুনের বাবার কিছু পরিমাণ জমি অতিরিক্ত যৌতুক হিসেবে স্বামীর নামে লিখে দেবার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। পারভীনের পরিবার থেকে এতে আপত্তি তোলায় মাঝে মাঝেই স্ত্রীকে অমানুষিক নির্যাতন করতো স্বামী নাঈম হোসেন। এ নিয়ে দাম্পত্য জীবনে তাদের মধ্যে চরম কলহ চলে আসছিল।
কিছুদিন ধরে নাঈম হোসেন তাদের দাবিকৃত জমির পরিবর্তে নগদ ১ লাখ টাকা বাড়তি যৌতুক হিসেবে দাবি করে পারভীন খাতুনের কাছে। পারভীনের পরিবার এই অর্থ দিতে ব্যর্থ হলে নাঈম হোসেন শুক্রবার সকালে তার স্ত্রী পারভীন খাতুনকে ধারালো চাকু দিয়ে নিজের ঘুমানোর ঘরে জবাই করার চেষ্টা করে। চাকু দিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানেও আঘাত করা হয়। এতে গুরুতর আহত হন পারভীন। পারভীন খাতুনের আর্তচিৎকারে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে এগিয়ে এলে নাঈম পালিয়ে যায়। বর্তমানে পারভীন খাতুন স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকৎসাধীন রয়েছেন।
এ ব্যাপারে পারভীনের চাচা সোলায়মান হোসেন শুক্রবার দুপুরে উল্লাপাড়া থানায় নাঈম হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
এ বিষয়ে উল্লাপাড়া মডেল থানায় যোগাযোগ করা হলে  বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
এ ঘটনার পর এলাকায় চাঞ্চল্যকর অবস্থা বিরাজ করছে।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us