শিরোনাম

ওরা ভয়ঙ্কর অপহরণ চক্র,গার্মেন্ট কর্মকর্তা-ছাত্রের আড়ালে!!

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, মার্চ ১১, ২০২১ ৯:৫৭:০৮ অপরাহ্ণ
ওরা ভয়ঙ্কর অপহরণ চক্র,গার্মেন্ট কর্মকর্তা-ছাত্রের আড়ালে!!
ওরা ভয়ঙ্কর অপহরণ চক্র,গার্মেন্ট কর্মকর্তা-ছাত্রের আড়ালে!!

হিন্দি মুভির জনপ্রিয় নায়ক, অথবা নামী-দামী ক্রিকেট তারকা বা রকস্টারদের স্টাইলে কাটা মাথার চুল।কারো বয়স ১৭/১৮, কারো ২৫-২৬। পোষাক-আশাক বা চাল-চলনে বোঝার উপায় নেই ওরা ভয়ংকর অপহরণকারী। অপহরণ করে হত্যা ও নির্যাতন চালিয়ে বিকাশে টাকা আদায় ওদের পেশা।এলকায় তারা কেউ পরিচিত গার্মেন্ট কর্মকর্তা, কেউ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র।
গত বুধবার রাতে এ চক্রের হোতাসহ ৬ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে গাজীপুর পিবিআই। উদ্ধার করেছে আগের দিন সন্ধ্যায় অপহৃত জগন্নাথ বিশ্বদ্যায়ের ছাত্র জীবন মন্ডলকে (২০)। জীবন মন্ডল ঝিনাইদহের শৈলকূপার ভগবান নগরের মো. ছব্দুল মন্ডলের ছেলে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, দলনেতা মো. শুভ (২৫), মো. করিম মিয়া (২১), মো. মামুন (২২), মো. মহিনকে (১৯), আফজাল হোসেন নাঈম (২০) ও মো. রাসেল (২০)। তারা গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর থানার জিরানী এলাকায় ভাড়া থাকতো।

গাজীপুর পিবিআই সূত্র জানায়, ছাত্র পরিচয়ে মামুনের সাথে ফেসবুকে বন্ধুত্ব হয় জীবন মন্ডলের। করোনার ছুটিতে দীর্ঘদিন বাড়ি কাটিয়ে গত সপ্তাহে ঢাকার সাভারের একটি মেসে ওঠেন জীবন। চ্যাটিংয়ে জীবনকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জিরানীতে দেখা করতে বলে মামুন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে জিরানী আসলে কৌশলে ৬ জন মিলে তাকে অপহরণ করে। পরে তারই মোবাইল দিয়ে বাবাছব্দুল মন্ডলের মোবাইলে ফোন করে অপহরণের কথা জানিয়ে এক ঘণ্টার মধ্যে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। অন্যথায় জীবনকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। ছব্দুল মন্ডল অপহরণকারীদের কথানুযায়ী বিকাশের মাধ্যমে ৫ হাজার টাকা পাঠিয়ে ঘটনাটি গাজীপুর পিবিআইকে জানায়।

বৃহস্পতিবার তাদের গাজীপুর আদালতে পাঠানো হলে অপহরণ ও মুক্তপণের কথা বিচারকের কাছে স্বীকার করে। আসামিরা আরো ৪-৫টি অপহরণের সাথে জড়িত বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। গার্মেন্ট কর্মকর্তা বা ছাত্র পরিচয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে তারা অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ে জড়িত।

গাজীপুর পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাকছুদের রহমান জানান, প্রথমে গাজীপুর মেট্টোপলিটন কাশিমপুর থানার উত্তর পানিশাইল থেকে মহিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে কাশিমপুর থানার দক্ষিণ পানিসাইলের হাজী নজরুল ইসলামের বাড়ির একটি কক্ষ থেকে রশি দিয়ে হাত-পা এবং গামছা দিয়ে মুখ বাধা অবস্তায় জীবনকে উদ্ধার এবং মো. শুভ, করিম মিয়া (২১), মামুনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যে অন্যদের গ্রেপ্তার করা হয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us