শিরোনাম

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা কি একটি রাজনৈতিক ইস্যু ??

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, মে ১২, ২০২১ ৮:৪৯:৪০ অপরাহ্ণ
খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা কি একটি রাজনৈতিক ইস্যু ??
খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা কি একটি রাজনৈতিক ইস্যু ??
মো গোলাম মোস্তফা-মোস্তাক বিশেষ প্রতিনিধি, । সম্পৃতি বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেয়ার ব্যাপারে সরকারের সাথে যে টানা হেঁচড়া চলছে সেটা বন্ধ হওয়া উচিত।
একজন বয়োবৃদ্ধা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তার চিকিৎসায় বিদেশ গমনে ইচ্ছা পূরনের জন্য সরকারের বাহাদুরের কাছে যে আবেদন করেছেন তাতে সরকারের আন্তরিকতার সাথে সাড়া দেওয়া উচিত। দেশের গণমাধ্যমগুলোতে এ ব্যাপারে বিশিষ্ঠজনদের নানা আলোচনা সমালোচনা চলছে।
খালেদা জিয়া যেহেতু শর্তসাপেক্ষে মুক্তি নিয়ে দেশে আছেন এবং তার পক্ষে কোন রাজনৈতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহন করা সম্ভব নয় ফলে চিকিৎসার নামে বিদেশ গিয়ে তিনি যা করতে পারেন বলে সরকার আশাংকা করছেন তা হলো
1. বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসার নামে বিদেশ গিয়ে তার ছেলের সাথে সরকার বিরোধী নানা প্রপাগন্ডা চালাতে পারেন 2. আর্ন্তজাতিক কমিউনিটির সাথে যোগাযোগ করে সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করতে পারেন। 3. বিদেশের মাটিতে বসে সরকার বিরোধী নানা চক্রান্তে লিপ্ত হতে পারেন। ৪. সরকার উচ্ছেদের জন্য গন আন্দোলন সৃষ্টি করতে পারেন।
খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার ব্যাপারে সরকারের সদাচ্ছির অভাব উল্লেখিত অন্তর্নিহিত রাজনৈতিক কারণে হতে পারে।
এখন প্রশ্ন হলো খালেদা জিয়ার যে শারিরীক অবস্থা তার পক্ষে দেশে অথবা বিদেশে যে কোন অবস্থানে থেকে আদৌ রাজনৈতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহন করা সম্ভব কিনা ? তাছাড়া করোনাকালীন বিশ্ব পরিস্থিতি রাজনৈতিক ইস্যুগুলোর চেয়ে অর্থনৈতিক ইস্যুগুলোই এখন মুখ্য বিষয়। দেশের আভ্যন্তরেও বিএনপির পক্ষে সরকার বিরোধী তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা সম্ভব না। রাজনীতির লাভ-ক্ষতির হিসেব কষলে খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দিলে সরকারের কোন ক্ষতির সম্ভবনা নেই বললেই চলে ।
বরঞ্চ খালেদা জিয়ার যে শারিরীক অবস্থা তাতে উনি দেশে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলে বিএনপির জন্য নতুন পলিটিক্যল ইস্যুর জন্ম নিবে যা তারা সরকার বিরোধী রাজনৈতিক ইস্যু হিসাবে নানা বক্তৃতা বিবৃতিতে কাজে লাগাবে। বঙ্গবন্ধু কন্য সেখ হাসিনা গভীর রাজনৈতিক দূরদৃষ্টি সম্পন্ন একজন মানবতাবাদী নেত্রী ।
তাঁর রাজনৈতিক দূরদর্শিতা এবং মানবিক দৃষ্টান্তের স্বাক্ষর মেলে 2013 সালে গভীর রাজনৈতিক সংকট নিরসনে তিনি খালেদা জিয়াকে ফোন করেছেন । খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমানের লাশ দেশ পোঁছালে তিনি তাকে দেখতে বেগম খালেদা জিয়ার বাসায় গিয়েছেন। জননেত্রী সেখ হাসিনা ইতিবাচক রাজনীতির চর্চা করেন।
আইনের উর্দ্ধে যেমন কেউ নয় আবার আইন তো মানুষের জন্যই। ফলে খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে যেমন বাসায় চিকিৎসার সুযোগ করে দিয়েছেন তেমনি তাকে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দিলে সরকারের ভাবমূর্তি বাড়বে । এ ব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতবাচক পদক্ষেপ নিলে বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার গ্রহন নিশ্চিত হবে।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us