শিরোনাম

চাকরি ছাড়ছেন মার্কিন পুলিশরা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, জুন ১৯, ২০২০ ১১:৩০:০৩ পূর্বাহ্ণ
চাকরি ছাড়ছেন মার্কিন পুলিশরা
চাকরি ছাড়ছেন মার্কিন পুলিশরা

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশি নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ যুবকের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে শুরু হওয়া বিক্ষোভ-আন্দোলন এখনো অব্যাহত রয়েছে। গত তিন সপ্তাহ ধরে চলা এই বিক্ষোভে আন্দোলনকারীরা দাবি তুলেছে দোষী পুলিশ সদস্যকে বিচারের আওতায় আনার। এমনকি দাবি উঠেছে পুলিশ বিভাগের অর্থায়ন বন্ধ করে দেয়ারও।

এরই মধ্যে সম্প্রতি পুলিশ বিভাগের সংস্কার-সংক্রান্ত এক নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে এর পরও সংকটে রয়েছে দেশটির পুলিশ বাহিনী। নানা প্রশ্ন উঠছে তাদের ভূমিকা নিয়ে।

এদিকে দেশটির চলমান এই অবস্থার মধ্যে কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা পদত্যাগ করেছেন বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

গত ২৫ মে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের এ মিনিয়াপলিস শহরেই শ্বেতাঙ্গ পুলিশ সদস্যের হাতে নিহত হন কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড। এ ঘটনার পর শহরের অন্তত সাতজন পুলিশ সদস্য তাদের চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন। আরো ছয়জন পুলিশ সদস্যের চাকরি ছাড়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। এর বাইরে জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডে জড়িত চার পুলিশ সদস্যও পদত্যাগ করেছেন।

মিনিয়াপলিস পুলিশ বিভাগের মুখপাত্র জন এল্ডার স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানান, ধীরে ধীরে লোকজন পুলিশের চাকরি ছেড়ে দিচ্ছেন। পদত্যাগের সংখ্যা আরো বাড়লে শহরের পুলিশ বিভাগ সমস্যায় পড়বে।

জর্জ ফ্লয়েডের পর গত শুক্রবার আটালান্টা শহরে ফের পুলিশের গুলিতে নিহত হয় রেশার্ড ব্রুকস নামের আরেক কৃষ্ণাঙ্গ মার্কিন নাগরিক। এ ঘটনার পরপরই এর প্রতিবাদ জানিয়ে আন্দোলনে নামে বাসিন্দারা। পরে অভিযুক্ত দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়। পাশপাশি পদত্যাগ করেন আটলান্টা শহরের পুলিশ প্রধান।

এ নিয়ে চলতি মাসে ৮ জন পুলিশ কর্মকর্তা তাদের চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন বলে জানিয়েছে আটালান্টা পুলিশ। শহরের পুলিশ প্রধানের পদত্যাগের পর সেকেন্ড অফিসারকে প্রশাসনের দায়িত্ব দেয়া হয়।

সম্প্রতি দক্ষিণ ফ্লোরিডার সোয়াট ইউনিটের ১০ কর্মকর্তাও চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন। তারা এই পদত্যাগের জন্য নিরাপত্তাজনিত কারণ দেখিয়েছেন। তবে জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের পর শুরু হওয়া আন্দোলনে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সোয়াট ইউনিট কমান্ডারের বিরূপ আচরণের কাথাও জানিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তারা।

নিউইয়র্কের বাফেলো শহরের দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করার প্রতিবাদে সেখানকার পুলিশের জরুরি সাড়া প্রদান টিমের অন্তত ৬০ কর্মকর্তা পদত্যাগ করেছেন। শহরে আন্দোলনকারী এক বয়স্ক ব্যক্তিকে মাটিতে ধাক্কা মেরে ফেলে গুরুতর আহত করার কারণে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর