শিরোনাম

চুরির অভিযোগে দুই ইউপি সদস্যকে গণপিটুনি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, জুলাই ৯, ২০২২ ৯:৩৪:২৯ পূর্বাহ্ণ
চুরির অভিযোগে দুই ইউপি সদস্যকে গণপিটুনি
চুরির অভিযোগে দুই ইউপি সদস্যকে গণপিটুনি

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ভিজিএফ চাল চুরির অভিযোগে দুই ইউপি সদস্যকে গণপিটুনি দিয়েছে জনতা। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার দেওপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় জনতার রোষানল থেকে বাঁচতে দৌঁড়ে পালিয়ে যান ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন হেপলু। আর গণপিটুরি শিকার দুই ইউপি সদস্য হলেন রেজাউল করিম ও আব্দুস ছালাম।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সকাল থেকে দেওপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবন থেকে ঈদ উপলক্ষে ইউনিয়নের ভিজিএফ-এর চাল বিতরণের কার্যক্রম চলছিল। কিন্তু চাল বিতরণ শেষ না করেই বিকেলের দিকে ৩০ কেজির ১২৫ বস্তা (৩৭৫০ কেজি) চাল অটোরিকশায় বোঝাই করে পাচার করছিলেন ইউপি সদস্য রেজাউল করিম ও আব্দুস ছালাম। এ সময় উপস্থিত জনতা রাস্তায় চালসহ দুই ইউপি সদস্যকে ঘেরাও করে। পরে উত্তেজিত জনতা তাদের দুজনকে গণপিটুনি দিয়ে আটকে রাখে। এসময় ইউপি চেয়ারম্যান রম্নহুল আমিন হেপলু দৌড়ে পালিয়ে যান।

এরপর ঘাটাইল থানা পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসনের লোকজন গিয়ে চালসহ জনতার হাতে আটক দুই ইউপি সদস্যকে উদ্ধার করে। এদিকে দুই ইউপি সদস্যকে গণপিটুনি দেওয়ার পর ছেঁড়া জামা-কাপড়সহ একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মূহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে।

চাল চুরির অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি সদস্য আব্দুস ছালাম বলেন, চেয়ারম্যানের নির্দেশে তারা চালের বস্তাগুলো সরিয়ে নিয়ে দেলুটিয়া থেকে বিতরণ করতে চেয়েছিলেন।

 

দেওপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন হেপলু জানান, জনগণের সুবিধার জন্য তার নিজ এলাকা দেলুটিয়া বাজার থেকে চালগুলো বিতরণ করতে চেয়েছিলেন তিনি। সে মোতাবেক ওই এলাকার দুই ওয়ার্ড সদস্যদের মাধ্যমে অটোরিকশাযোগে পরিষদ থেকে চাল পাঠান তিনি। কিন্তু একটি মহল পথে চাল আটকে দেয় এবং চুরির অপবাদ দেয়।

ঘাটাইল থানার উপপরিদর্শক পলাশ আহমেদ বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশক্রমে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

Spread the love
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us