শিরোনাম

ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নারীর মৃত্যু

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, জুলাই ২০, ২০১৯ ৭:০৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ

রাজধানীর উত্তর বাড্ডা এলাকায় ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে এক নারীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। আজ শনিবার সকাল নয়টার দিকে উত্তর বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকাল সাড়ে আটটার দিকে এক নারী উত্তর–পূর্ব বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় স্কুলের সামনে প্রবেশপথে থাকা অভিভাবকেরা তাঁকে ভেতরে যাওয়ার কারণ জানতে চান। ওই নারী সন্তানকে স্কুলে ভর্তি করাবেন বলে জানান। স্কুলে শিক্ষার্থী ভর্তি নেওয়া হচ্ছে না—জানিয়ে ওই নারীকে প্রধান শিক্ষিকার কক্ষে নেন। এ সময় চারপাশে খবর ছড়িয়ে পড়ে, স্কুলে ছেলেধরা এসেছে। এ খবরে স্কুলে লোকজনের ভিড় জমায়। এর কিছুক্ষণ পরই ছেলেধরা সন্দেহে স্কুলের বাইরে এনে ওই নারীকে গণপিটুনি দেওয়া হয়। পুলিশ ওই নারীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, সকাল সাড়ে আটটার দিকে সালোয়ার–কামিজ পরা এক নারী উত্তর–পূর্ব বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভেতরে যাচ্ছিলেন। এমন সময় স্কুলের সামনের প্রবেশপথে থাকা অভিভাবকেরা তাঁকে ভেতরে যাওয়ার কারণ জিজ্ঞেস করেন। এ সময় ওই নারী সন্তানকে স্কুলে ভর্তি করাবেন বলে জানান। তখন অভিভাবকদের সন্দেহ হলে নারীকে জিজ্ঞেস করা হয় যে এ সময় তো স্কুলে ভর্তি নেওয়া হয় না—আবার তাঁর ভেতরে যাওয়ার কারণ জানতে চান। একপর্যায়ে ওই নারীকে নিয়ে তাঁরা প্রধান শিক্ষিকার কক্ষে নিয়ে যান। ভেতরে যাওয়ার পর ওই নারীকে তাঁর নাম-পরিচয় জানতে চাওয়া হয়। তাঁর বাসার ঠিকানা জানতে চাইলে তিনি একেকবার একেক বাসার ঠিকানা বলছিলেন। এ সময় আশপাশে খবর ছড়িয়ে পড়ে, শিশুদের ধরতে স্কুলে লোক এসেছে। এ খবরে বাঁশের বাজার ও পাশের এলাকার প্রচুর লোক স্কুলে ভিড় জমায়। এর কিছুক্ষণ পর ওই নারীকে ছেলেধরা সন্দেহে স্কুলের বাইরে এনে গণপিটুনি দেওয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ওই নারীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে নেওয়ার পর চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, পুরো ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে নারীর নাম-পরিচয় এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। ওই নারীর বয়স আনুমানিক ৩৩ থেকে ৩৪ বছর হতে পারে বলে ধারণা করছেন ওসি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us