শিরোনাম

জৈন্তাপুরে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, এপ্রিল ৩, ২০২১ ১২:১৯:১৬ অপরাহ্ণ
জৈন্তাপুরে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে
জৈন্তাপুরে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে
পূর্বঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসাবে হেফাজতে ইসলামের কর্মী সমর্থকরা বাদ আছর বিভিন্ন ইউনিয়ন হতে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক পদক্ষিণ করে জৈন্তাপুর উপজেলা প্রাণ কেন্দ্র জৈন্তেশ্বরী মিউজিয়াম বাড়ীতে এসে জড়ে হয়।
তবে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কোন সদস্যদের উপস্থিতি ছিল না। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ আগমন নিয়ে রাজধানী ঢাকা, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, হাটহাজারীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঈমান আকিদার বিশ্বাসে ইসলামের শত্রু, মুসলমান নিধনকারী খসাই মোদী নামে বিশ্বব্যাপি পরিচিত লাভ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় হেফাজতে ইসলাম শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালন করছিল।
কিন্তু অতি উৎসাহি ইসলাম ধর্মের কিছু সংখ্যাক শত্রুদের নির্দেশে বাংলাদেশ পুলিশ হেফাজতের কর্মীদের উপর নির্বিচারে গুলি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এঘটনায় হেফাজতে ইসলামের ১৭জন নেতাকর্মী প্রাণহানি ঘটে এবং কয়েক হাজার নেতাকর্মী আহত হয়েছে।
যার প্রেক্ষিতে গত ২৮ মার্চ রবিবার সারাদেশে শান্তিপূর্ণ হরতাল কর্মসূচী পালন করে। তাতেও কিছু সংখ্যাক ইসলাম ও মুসলমান বিরোধী নেতার উষ্কানিতে হেফাজতের শান্তিকপূর্ণ হরতালে পুলিশ নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করে। যার প্রেক্ষিতে হেফাজতের কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ জৈন্তাপুরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
সমাবেশ বক্তারা বলেন, যদি আমাদের পার্শ্ববর্তী কানাইঘাট ও গোয়াইনঘাট উপজেলায় হেফাজতের কেন্দ্রীয় ঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করতে দেওয়া হয়নি কিন্তু আমাদের জৈন্তাপুর উপজেলার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আমাদের অনুমতি দিয়েছে এজন্য হেফাজতে ইসলাম জৈন্তাপুর উপজেলা শাখার পক্ষ হতে প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। মুসলামান চরম শত্রু, বাবরী মসজিদ ধ্বংস করে রাম মন্দির প্রতিষ্ঠাকারীকে এ সরকার বাংলাদেশে নিয়ে এসে পুলিশ দিয়ে মুসলামানদের আর্কিদা বিশ্বাসী হেফাজতের নেতা কর্মী সহ তৌাহিদী জনতাকে হত্যা করা হয়েছে তার সুষ্ট বিচার করতে হবে।
তারা আরও বলেন, এখন হতে হেফাজতের কেন্দ্র ঘোষিত সকল প্রকার কর্মসূচী পালন করতে পুলিশ কিংবা অতি উৎসাহি নেতারা বাঁধা প্রদান করেন তাহলে আমরা আর বসে থাকব না তা প্রতিহত করব। হেফাজতে ইসলাম যেহেতু রক্ত দিয়েছে তাই আরও রক্ত দিতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us