শিরোনাম

তিতাসে ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় বাদীকে হত্যার চেষ্টা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, এপ্রিল ৪, ২০২১ ১২:০৭:৪০ পূর্বাহ্ণ
তিতাসে ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় বাদীকে হত্যার চেষ্টা
তিতাসে ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় বাদীকে হত্যার চেষ্টা
মোঃ নাঈম সরকার (কুমিল্লা) থেকেঃ- কুমিল্লার তিতাস উপজেলায় মজিদপুর ইউনিয়নের বালুয়াকান্দি গ্রামে ছিনতাইয়ের ঘটনায় থানায় অভিযোগ করায় বিকাশ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে অভিযুক্ত ছিনতাইকারী গং ৩ এপ্রিল শনিবার সকাল ৮ টায় উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়নের বালুয়াকান্দি বাজারে বিকাশ দোকানী ছামাদ মোল্লার ছেলে প্রবাস ফেরত দ্বীন ইসলাম সাগর (২৭) সাথে ঘটনাটি হয়।
গত ২ মার্চ শুক্রবার বিকালে মোটর সাইকেল যোগে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে মজিদপুর গ্রামে তার বোনের বাড়িতে যাওয়ার পথে কাকিয়াখালী গ্রামের সিরাজ মিয়ার বাড়ির সামনে গতিরোধ করে বালুয়াকান্দি গ্রামের চিহ্নিত চাঁদাবাজ রবি উল্লাহ, ইব্রাহীম, আল-আমিন ও সোহেল সংঘবদ্ধ হয়ে সাগরের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা জোর করে ছিনিয়ে নেয়।
পরে সাগর তিতাস থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ তদন্তে যায় এবং তারই প্রেক্ষিতে ৩ এপ্রিল সকাল ৮ টায় সাগরের উপর হামলা চালায় উল্লেখিত বিবাদীগণ। বর্তমানে সাগর তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে।
এই বিষয়ে আহত সাগর বলেন, রবি উল্লাহ সহ সকলেই চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তাদের ভয়ে এলাকায় কেউ কথা বলতে নারাজ। তারা আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়েছে। সাগর আরও বলেন, আমি কেন থানায় লিখিত অভিযোগ দিলাম কেন পুলিশ আসল? এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সংঘবদ্ধ হয়ে হামলা চালায় ।এবং আমার দোকান ভাংচুর করে নগদ-৫ লক্ষ ৫৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়।
সরজমিন গিয়ে অভিযুক্ত রবিউল্লার বাড়িতে গেলে তিনি বলে আমার ছেলে সিএনজি চালক রাস্তা সাগরের মোটর সাইকেল সাথে সিএনজি সংঘর্ষ হলে সাগর আমার ছেলেকে চর মারে এবং পুলিশের কাছে অভিযোগ দেয়, স্থানীয় জণগণ বিষয়টির কোন মীমাংসা না করায় ঘটনাটি ঘটে, তবে টাকা ছিনতাই বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। উক্ত ঘটনায় স্থানীয় লোকজন মুখ খুলতে নারাজ।
স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক মিয়া সরকার দুপক্ষের বাড়িতে গিয়ে উত্তেজনা ঠান্ডা করার চেষ্টা করে এবং সাগরকে দেখতে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যায়।
উক্ত বিষয়ে তিতাস থানা পুলিশ জানান,এখনও মামলা হয়নি,তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us