শিরোনাম

নতুন করে ফেনীতে সক্রিয় হয়ে উঠেছে মলম-অজ্ঞান পার্টির একাধিক গ্রুপ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, নভেম্বর ৯, ২০২২ ৬:৩৩:১১ অপরাহ্ণ

পেয়ার আহম্মদ চৌধুরী, ফেনী জেলা প্রতিনিধি: ফেনীতে নতুন করে সক্রিয় হয়ে উঠেছে মলম/অজ্ঞান পার্টির একাধিক গ্রুপ। সূত্র বলছে শহরের মহিপাল, শহীদ শহীদুল্লাহ কায়সার সড়ক, সদর হাসপাতাল মোড় ট্রাংক রোড়সহ শহরাঞ্চলে বেশ সক্রিয় মলম পার্টির সদস্যরা। যাকেই তারা টার্গেট করে তাকে কৌশলে অজ্ঞান করে তার থেকে সর্বস্ব লুটে নেয় তারা। মলম পার্টির সদস্যরা যে ব্যক্তিকে টার্গেট করে প্রথমে তার চলাফেরা গতিবিধির উপর নজর রাখে এবং যে ব্যাংক থেকে টাকা তুলে তা চক্রের অন্য সদস্যদের তথ্য দেওয়া হয়। এরপর ঐ ব্যাক্তির সাথে ছলে বলে কৌশলে কথা বলে তাকে অজ্ঞান করে নিয়ে যায় তার সাথে থাকা সবকিছু।

ফেনী পৌর এলাকার ১১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আব্দুল মান্নান (৬০) ২ নভেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে ফেনীর শহীদ শহীদুল্লাহ কায়সার সড়কস্হ ইসলামী ব্যাংক শাখা থেকে টাকা তোলার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়। এরপর বেলা ২:৩০ মিনিটের দিকে ফেনী সদর হাসপাতাল মোড়ের সেন্ট্রাল প্লাজার সামনে পথচারীরা আব্দুল মান্নানকে অজ্ঞেন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে সেখান থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। এরপর অজ্ঞাত ব্যক্তির ছবি দিয়ে তার পরিবারের সন্ধান পেতে ফেইসবুকে পোস্ট করে আব্দুল মান্নানকে হাসপাতালে নিয়ে আসা পথচারীরা। পথচারীদের ফেইসবুক পোস্টের সূত্র ধরে আব্দুল মান্নান এর পরিবার সন্ধান পায় আব্দুল মান্নানের।

ভুক্তভোগী আব্দুল মান্নানের জামাতা মো. রাসেল জানান, মলম পার্টি চক্রের সদস্যরা তার শশুরকে অজ্ঞান করে তার সাথে থাকা ৫ লক্ষ টাকা নিয়ে যায়। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ফেনী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। তার অভিযোগের ভিত্তিতে ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন তাকে আশ্বস্ত করে দ্রুত সময়ে এ ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে।

ফেনী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিজাম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানায়, মলম পার্টি বা অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম্য বন্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিষয়টিকে সর্বোচ্চ নজরদারি রাখা হয়েছে এবং দ্রুত সময়ে এই চক্রগুলোর সদস্যদের গ্রেফতার করা হবে।

Spread the love
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us