শিরোনাম

নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করছে ফেসবুক

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, আগস্ট ১৮, ২০২০ ৯:৩২:৩৯ অপরাহ্ণ
নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করছে ফেসবুক
নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করছে ফেসবুক

ফেসবুক ভারতের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করছে, এমন অভিযোগ তুলে সংস্থার সিইও মার্ক জাকারবার্গকে চিঠি দিয়েছে দেশটির অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল কংগ্রেস৷ একই সঙ্গে ক্ষমতাসীন বিজেপিকে ফেসবুক সাহায্য করছে কিনা, সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখতে উচ্চপর্যায়ের তদন্ত করার জন্যও জাকারবার্গকে অনুরোধ করা হয়েছে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে৷ কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কে সি বেণুগোপাল জাকারবার্গকে এই চিঠি লিখেছেন৷

সম্প্রতি মার্কিন সংবাদমাধ্যম দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়, বিদ্বেষমূলক পোস্ট করলেও বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেয় না ফেসবুক৷ এই রিপোর্টকে কেন্দ্র করেই কথার লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়ে কংগ্রেস এবং বিজেপি নেতৃত্ব৷ কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি রাহুল গান্ধি অভিযোগ করেন, ভারতে বিজেপি এবং আরএসএস যে ফেসবুককে নিয়ন্ত্রণ করে, এটা তারই প্রমাণ৷

ফেসবুকের পক্ষ থেকে অবশ্য বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়, গোটা বিশ্বেই রাজনৈতিক রঙ না দেখে কেউ বিদ্বেষমূলক পোস্ট করলেই ব্যবস্থা নেয় সংস্থা৷ তার পরেও ফেসবুককে চিঠি লেখার সিদ্ধান্ত নিল কংগ্রেস নেতৃত্ব৷

কংগ্রেসের তরফে যে চিঠি মার্ক জাকারবার্গকে পাঠানো হয়েছে, সেটি ট্যুইটারে পোস্ট করেছেন রাহুল গান্ধি৷ সঙ্গে তিনি দাবি করেছেন, ‘কঠোর সংঘর্ষের পর যে গণতান্ত্রিক অধিকার আমরা অর্জন করেছি, পক্ষপাত, মিথ্যে খবর আর বিদ্বেষমূলক প্রচারের মাধ্যমে তার সঙ্গে কোনো রকম আপোষ করতে দেব না৷ কীভাবে ফেসবুক এই ধরনের মিথ্যে প্রচার ও বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ করেছে, তা ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল প্রকাশ্যে এনেছে, এ নিয়ে প্রত্যেক ভারতীয়ের প্রশ্ন তোলা উচিত৷’

মার্কিন ওই সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফেসবুক কর্মকর্তার উদ্ধৃত করেই ভারতে সংস্থার পলিসি এক্সিকিউটিভ পদে থাকা আঁখি দাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়৷ অভিযোগ, তেলেঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক রাজা সিং মুসলিমদের নিশানা করে পোস্ট করলেও আঁখি দাসের হস্তক্ষেপেই তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ৷ অভিযোগ, আঁখি সংস্থার কর্মী, আধিকারিকদের বোঝান, বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে ভারতের ফেসবুকের ব্যবসা মার খাবে৷

কংগ্রেসের পক্ষ থেকে  দাবি করা হয়েছে, আঁখি দাসের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে একটি উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করুন জাকেরবার্গ৷ পাশাপাশি ভারতে ফেসবুকের টিম কীভাবে কাজ করছে, তা খতিয়ে দেখা হোক৷ যতদিন না পর্যন্ত তদন্ত শেষ হচ্ছে, ততদিন ভারতের জন্য নতুন টিম নিয়োগ করা হোক৷ পাশাপাশি, ২০১৪ সাল থেকে ভারতে যত বিদ্বেষমূলক পোস্ট করা হয়েছে, সেগুলো জনসমক্ষে আনুক ফেসবুক৷

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর