শিরোনাম

পাবনায় ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে এক দিনমজুরের আত্মহত্যা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, মে ১৯, ২০২১ ৭:৪৮:৩৫ অপরাহ্ণ
পাবনায় ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে এক দিনমজুরের আত্মহত্যা
পাবনায় ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে এক দিনমজুরের আত্মহত্যা

মোহাম্মদ তারিক হাসান পাবনা প্রতিনিধিঃ পাবনায় আব্দুল মান্নান বাবু (৪৭) নামে এক দিনমজুর আত্মহত্যা করেছেন। আজ দুপুর ১টার দিকে তিনি এক ধরনের কীটনাশক জাতীয় ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেন

। দিনমজুর আব্দুল মান্নান বাবু পাবনা জেলার ভাঙ্গুড়া উপজেলার পৌর সদরের ১নং ওয়ার্ডের আব্দুর রহমানের ছেলে।পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আব্দুল মান্নান ব্যক্তিগত জীবনে এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তানের জনক।তার কোন জমি জমা নেই।

তাই সে অন্যের জমি লিজ, বর্গাচাষ ও মানুষের বাড়িতে দিনমজুরির কাজ করে সংসার চালাতেন। করোনার কারণে বর্তমানে তার দিনমজুরির কাজ অনেকটাই কমে গিয়েছিল। তাই তার সংসারে অভাব ছিল চরম। রোজগার না থাকায় বিভিন্ন ব্যক্তি ও এনজিওর কাছ থেকে ঋণ নেয়। সেই ঋণের বোঝা দিন দিন বৃদ্ধি পেয়ে যায়।

সেই ঋণের বিভিন্ন এনজিও এবং ব্যক্তিরা তাকে ঋণ শোধ করার জন্য চাপ দেয় এবং বিভিন্নভাবে বাড়িতে এসে বিভিন্ন রকম চাপে রাখে। ব্যক্তি এবং এনজিওর লোকজন বাড়িতে টাকার জন্য এলে বাবু লজ্জা পান এবং মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। সেই চাপ থেকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হওয়ার এক পর্যায়ে আজ দুপুরে বাড়িতে লোকজন না থাকার সুযোগে সবার অগোচরে নিজ ঘরে তিনি এক ধরনে কীটনাশক জাতীয় ট্যাবলেট খান তিনি।

স্বজনরা বিষয়টি টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার নাজমুস খুবই সংকটাপন্ন অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল। হাসপাতালের পৌঁছানোর পর চিকিৎসা শুরুর আগেই তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, তিনি অনেক কষ্টে দিনাতিপাত করতেন। শুনেছি কিছু লোনও ছিল। ঈদে মেয়ে জামাই বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল তাদের ভালো খাবার দিতে না পারায় মন খারাপ করে থাকতেন। পরিবারের দাবি তিনি অভাবের তাড়নায় এমন কাজ করেছেন।

তাই প্রাথমিকভাবে ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে ধারণা করছি। মরদেহ উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us