শিরোনাম

পাবনায় ইছামতী নদী পুনঃখনন ও নদীর ভূমিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, মে ৩১, ২০২১ ৮:২৭:৫২ অপরাহ্ণ
পাবনায় ইছামতী নদী পুনঃখনন ও নদীর ভূমিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন
পাবনায় ইছামতী নদী পুনঃখনন ও নদীর ভূমিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন
মোহাম্মদ তারিক হাসান পাবনা প্রতিনিধিঃ হাইকোর্টের নির্দেশ মোতাবেক পাবনার ইছামতী নদী পুনঃখনন ও নদীর ভূমিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম বাস্তবায়নের দাবিতে পাবনা জেলা প্রশাসক কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালন করেছে আজ সকালে পাবনা ইছামতী নদী উদ্ধার আন্দোলনের সঙ্গে সম্পৃক্ত স্থানীয় বেশ কিছু সামাজিক সংগঠন।
আজ সকালে পাবনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের মূল ফটকের সামনে ব্যানার নিয়ে বিক্ষোভ প্রর্দশন করে। জেলা প্রশাসক কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচির আয়োজন করেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), ইছামতী নদী উদ্ধার আন্দোলন ও বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের সঙ্গে সম্পৃক্ত বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, সাংবাদিকসহ সমাজের নানা শ্রেণী ও পেশার মানুষ এই কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করেন।
আজকের মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আ স ম আব্দুল রহিম পাকন, বীর মুক্তিযোদ্ধার আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন বাপার সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট তসলিম হাসান সুমন, ইছামতী নদী উদ্ধার আন্দোলনের সভাপতি এস এম মাহাবুব আলম, বাপার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ খান, নদী বাঁচাও আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শহীদুর রহমান প্রমুখ।
এ সময় বক্তারা বলেন, পাবনাবাসীর দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি ছিল শত বছরের ঐতিহ্যবাহী এই ইছামতী নদী পুনঃখননের। দীর্ঘ আন্দোলন ও সংগ্রামের পরে সরকার ইছামতী নদী পুনরুজ্জীবিত করার জন্য অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। চলতি বছরের মার্চ মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হওয়া এই নদীর খনন ও উচ্ছেদ কাজের তেমন কোনো অগ্রগতী নেই বললেই চলে।
এই খনন কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দায়সারাভাবে কাজ করে নদী খনন দেখাতে চাইছে। সরকারের এই উন্নয়ন নদী খনন কাজ নিয়ম মাফিক না করে নিজেদের ইচ্ছামতো কাজ করে অর্থ উত্তোলন করার পাঁয়তারা করছে তারা। বক্তারা আর বলেন, ওই কাজের দেখভালের দায়িত্বে থাকা পাবনা পানি উন্নয়ন বোর্ড কোনো রকমের নজরদারি করছে না।
তাই হাইকোর্টের দেওয়া নির্দেশ মোতাবেক আর নদী খননের দরপত্রের নিয়ম অনুযায়ী পরিকল্পামাফিক নদী খনন করার জন্য প্রশাসনের সুদৃষ্টি প্রত্যাশা করা হচ্ছে। ফলে, এই নদী খনন কাজ যদি সঠিক নিয়মে না করা হয় তবে আগামী দিনে পানি উন্নয়বোর্ড ঘেরাও কর্মসূচি দেওয়া হবে। পরে কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করা নেতাকর্মীরা লিখিত অভিযোগ জেলা প্রশাসকের কাছে হস্তান্তর করেন।
জেলা প্রশাসক এই নদী খনন কাজের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগের দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে কাজের মান সঠিকভাবে করার জন্য প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।
আর কাজের মান সঠিকভাবে না করা হলে এই কাজের কোনো অর্থ উত্তলন করতে দেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেন।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us