শিরোনাম

ফরিদপুরের সালথায় রম্যানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, এপ্রিল ২০, ২০২১ ১০:৩৬:২৭ অপরাহ্ণ
ফরিদপুরের সালথায় রম্যানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
ফরিদপুরের সালথায় রম্যানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ফরিদপুর প্রতিনিধি ফকির নয়ন মঙ্গলবার বিকেলে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে জেলার মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

আগের রাতে ফরিদপুর শহরের ঝিলটুলি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে ডিবি। গ্রেপ্তার মো. ওয়াহিদুজ্জামান (৪০) উপজেলার ভাওয়াল ইউনিয়নের ইউসুফদিয়া গ্রামের আব্দুল হাই মোল্লার ছেলে। ২০১৪ সালে বিএনপির সমর্থন নিয়ে সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

২০১৫ সালের ১৯ অগাস্ট তিনি ফরিদপুর-২ আসনের সাংসদ ও জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছিলেন বলে স্থানীয়রা জানায়। ফরিদপুর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওসি সুনিল কর্মকার বলেন, সালথায় সরকারি অফিসে তাণ্ডবের ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া সাত আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

ওই জবানবন্দিতে ওয়াহিদুজ্জামানের নাম উঠে আসায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ওয়াহিদুজ্জামানের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে মঙ্গলবার বিকেলে তাকে জেলার মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এছাড়া মামলার অন্য আসামিদের আটকে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সালথার সহিংসতার ঘটনায় পুলিশের করা মামলাসহ সাতটি মামলা হয়েছে।

এতে ৩৬৪ জনকে এজাহারভুক্ত আসামি করা হয়েছে। অজ্ঞাতনামা আসামি দেখানো হয়েছে আরও চার হাজার জনকে। মামলায় মঙ্গলবার পর্যন্ত ৯৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯৫ জনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। দুইজন আসামি গুলিবিদ্ধ হয়ে পুলিশ প্রহড়ায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অপর দুইজন আসামি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

গুজব ছড়িয়ে গত ৫ এপ্রিল রাতে সালথা উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন সরকারি অফিসে তাণ্ডব চালায় কয়েক হাজার উত্তেজিত জনতা। এ সময় দুটি সরকারি গাড়িসহ কয়েকটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয় তারা।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us