শিরোনাম

ফেনীতে ব্যবসায়িকে অজ্ঞান করে ৭ লাখ টাকা ছিনতাই

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, এপ্রিল ১৫, ২০২২ ৯:৩৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ
ফেনীতে ব্যবসায়িকে অজ্ঞান করে ৭ লাখ টাকা ছিনতাই
ফেনীতে ব্যবসায়িকে অজ্ঞান করে ৭ লাখ টাকা ছিনতাই

পেয়ার আহাম্মদ চৌধুরী, ফেনী জেলা প্রতিনিধি: ফেনীতে ব্যবসায়ীকে অজ্ঞান করে ছিনতাইকালে মলম পার্টির ৪ সদস্যকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা।গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফেনীর মহিপালের একটি হোটেলে ব্যবসায়ীকে অজ্ঞান করে ৭ লাখ টাকা ছিনতাইকালে তাদেরকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মঙ্গলবার বিকালে লক্ষ্মীপুরের মিরাজ হোসেন সীতাকুন্ডের পাইকারী বাজারে তরমুজ বিক্রি করে নিজ গ্রামে ফিরছিলেন। প্রতিমধ্যে ফেনীর মহিপালে ইফতারের সময় হওয়ায় তিনি গাড়ি থেকে নেমে আলমাস হোটেলে ইফতার করতে বসেন। এসময় হঠাৎ সৈকত, শহীদ, সাদ্দাম ও বাবুল নামের ৪ ব্যক্তি মিরাজের টেবিলে বসে তার সাথে ইফতারে অংশ নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন। একপর্যায়ে ইফতারের সামগ্রী মাখানোর সময় তারা চেতনা নাশক দ্রব্য মিশিয়ে দেয়। ওই ইফতারী খেয়ে মিরাজ হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে পড়ে।
এ সময় তাঁর সাথে থাকা নগদ ৭ লাখ টাকা ও মোবাইল সেট নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় উপস্থিত লোকজন ওই ৪ ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

আটককৃতরা হচ্ছেন, বরিশালের উজিরপুর উপজেলার নরসিংহা গ্রামের হাওলাদার বাড়ির হাবিবুর রহমানের ছেলে সৈকত (৩০), নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলার কালুয়াই গ্রামের আনু মিয়ার ছেলে শহিদুল ইসলাম (৪০), সেনবাগ উপজেলার জামালপুর গ্রামের মহাজনবাড়ির আবুল হাসেমের ছেলে রুবেল হোসেন সাদ্দাম (৩২) ও একই উপজেলার পদুয়া গ্রামের মনসুর আহমেদের ছেলে মিজানুর রহমান বাবুল (৪২)।

ফেনী মডেল থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুর রহীম সরকার আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃত ৪ ব্যক্তি অজ্ঞান পার্টির সক্রীয় সদস্য। তরমুজ ব্যবসায়ীর ৭ লাখ টাকা ও মোবাইল সেট ছিনতাইয়ের ঘটনার মামলায় তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

Spread the love
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us