শিরোনাম

ফেনীর সোনাগাজীতে স্বর্ণ দোকানে ডাকাতির ঘটনায় আহত অর্জুন ভাদুড়ি মারা গেছে

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, নভেম্বর ১৩, ২০২২ ৮:৫৫:১৫ অপরাহ্ণ

পেয়ার আহাম্মদ চৌধুরী, ফেনী জেলা প্রতিনিধি: ফেনীর সোনাগাজীতে স্বর্ণ দোকানে ডাকাতির ঘটনায় আহত অর্জুন ভাদুড়ি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।
১২ নভেম্বর (শুক্রবার) দিবাগত রাত ২টার দিকে চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ কনের।

এর আগে গত ৩০ অক্টোবর সোনাগাজীতে জমাদার বাজারে দিনে দুপুরে ফিল্ম স্টাইলে বোমা ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে অজ্ঞাত ডাকাত দল অর্জুন ভাদুড়ি’র নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেন। ওই সময় ডাকাতরা তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে স্বর্ণালংকার লুট করে।

আহত অর্জুন ভাদুড়িকে প্রথমে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে ফেনীর ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মাথায় জটিল অপরারেশনের পর তাকে আইসিইউতে রাখা হয়ে ছিলো। ঘটনার ১১দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর কাছে হাার মানলেন অর্জুন ভাদুড়ি।

অর্জুন ভাদুড়ির ভাতিজা মানিক ভাদুড়ি জানায় আইসিইউতে থাকা অবস্থায় তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হলে শারীরিক অবস্থা জটিল আকার ধারন করে।শুক্রবার বিকালে কিডনি ডায়ালেসিস করার পর তার শারিরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। পরে রাত ২ টার দিকে চিকিৎসরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

স্হানীয়রা জানান গত ৩০ অক্টোবর ছয়-সাতজনের একটি ডাকাত দল দুটি মোটরসাইকেল নিয়ে জমাদার বাজারের অর্জুন চন্দ্র বাদুরীর দোকানের সামনে আসে। এ সময় সড়কে বেশ কয়েকটি হাত বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে তারা স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। পরে তারা অর্জুন চন্দ্রকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দোকানে থাকা স্বর্ণালংকার লুট করে। বাধা দেওয়ায় দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে অর্জুনের মাথায় ও হাতে আঘাত করে দোকানে ভাঙচুর চালায়। চলে যাওয়ার সময় ডাকাতেরা আবারও বোমা ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে মোটারসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। ডাকাতেরা ‘অর্জুন জুয়েলার্স’ নামের ওই দোকানের প্রায় ৫০ লাখ টাকার স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছে বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। ঘটনার সময় ডাকাতদের অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত দোকানমালিক অর্জুন চন্দ্র বাদুরীকে প্রথমে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে ফেনীর ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয় পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ তার মৃত্যু হয়ে।
উল্লেখ, ঘটনার সময় বোমা বিস্ফোরণে বাজারের পথচারী লেদু মিয়াসহ চারজন আহত হন।

Spread the love
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us