শিরোনাম

বানারীপাড়ায় শ্বশুর-জামাতার একেরপর এক দলবদল

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, নভেম্বর ২, ২০২১ ৭:৩১:৩৮ অপরাহ্ণ
বানারীপাড়ায় শ্বশুর-জামাতার একেরপর এক দলবদল
বানারীপাড়ায় শ্বশুর-জামাতার একেরপর এক দলবদল

রাহাদ সুমন,বিশেষ প্রতিনিধি॥

বরিশালের বানারীপাড়ায় শ্বশুর-জামাইয়ের একের পর এক দলবদলের ঘটনা ‘টক অব দ্য নিউজে’ পরিণত হয়েছে। আনোয়ার হোসেন মৃধা এক সময় জাতীয় পার্টি করতেন। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার আমলে  বিএনপিতে যোগদান করে প্রথমে উপজেলার সৈয়দকাঠি ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ও পরে সহ-সভাপতি পদ লাভ করেন।

পরবর্তীতে বানারীপাড়া উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি পদ পাওয়ার পাশাপাশি ২০০৩ সালে অনুষ্ঠিত সৈয়দকাঠী  ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতা হারালে তিনি যোগদেন আওয়ামী লীগে।

২০১৬ সালে সৈয়দকাঠি ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত হলেও আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন প্রত্যাশী ১১ আওয়ামী লীগ নেতাকে ধরাশয়ী করে নৌকা প্রতিক ভাগিয়ে নিয়ে চমক সৃষ্টি করেন। তার জামাতা উপজেলা ওয়াকার্সপার্টির সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য আসাদুল ইসলাম বাদল ৯০’র দশকের শেষান্তে বিএনপিতে যোগ দেন।

সৎ,পরিচ্ছন্ন ও অসম্ভব মেধাবী তুখোড় এ বাম নেতা হঠাৎ করে ডানপন্থী বিএনপিতে যোগদান করায় সেইসময় সবাই হতবাক হন। তিনি ওই সময় উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক পদ লাভের পাশাপাশি বরিশাল  জেলা বিএনপির রাজনীতিতেও সরব হয়ে ওঠেন।

শ্বশুর আনোয়ার হোসেন মৃধা উপজেলার সৈয়দকাঠি ইউপি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হওয়ায় তিনি ১ নভেম্বর সোমবার রাতে বিএনপি ছেড়ে শতাধিক নেতা-কর্মীসহ  আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন। সৈয়দকাঠী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে শ্বশুরের নৌকা প্রতিকের উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং বরিশাল-১ ও ২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট তালুকদার মো.ইউনুসের হাতে ফুলের তোড়া তুলে দিয়ে তিনি আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

এসময় বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও বানারীপাড়া পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট সুভাষ চন্দ্র শীল,উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম সালেহ মঞ্জু মোল্লা,সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাওলাদ হোসেন সানা,সৈয়দকাঠী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন মন্টু ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মৃধাসহ শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে শ্বশুর আনোয়ার হোসেন মৃধা ও জামাতা আসাদুল ইসলাম বাদলের বক্তব্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ও বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চলমান উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় তৃনমূলে ভূমিকা রাখতে তারা আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন। আওয়ামী লীগের নীতি ও আদর্শ পরিপন্থী কোন কর্মকান্ডে তারা কখনও জড়িত হবেন না বলেও অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

এদিকে জীবনের পড়ন্ত বেলায় অতীতের আদর্শ ভুলে জাতির পিতার সঠিক আদর্শের বিষয়ে ‘শ্বশুর-জামাতার’ ‘বোধোদয়’ হওয়ায় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীসহ রাজনৈতিক সচেতন মহল তাদের দলবদলের এখানেই ইতি ঘটুক সেই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us