শিরোনাম

বাড়ছে ভারত-চীন যুদ্ধের সম্ভাবনা, অস্ত্র কেনার ছাড়পত্র দিল নয়াদিল্লি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, জুন ২২, ২০২০ ৮:৩০:৩৯ অপরাহ্ণ
বাড়ছে ভারত-চীন যুদ্ধের সম্ভাবনা, অস্ত্র কেনার ছাড়পত্র দিল নয়াদিল্লি
বাড়ছে ভারত-চীন যুদ্ধের সম্ভাবনা, অস্ত্র কেনার ছাড়পত্র দিল নয়াদিল্লি

গালওয়ান উপত্যকায় চীনা সেনাদের হাতে ২০ ভারতীয় সেনা জওয়ান নিহত হওয়ার ঘটনায় সীমান্তে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রতিশোধ নিতে মরিয়া ভারত লাদাখে যুদ্ধবিমান ও অ্যাটাক হেলিকপ্টার পাঠিয়েছে। চীনও পিছু হটেনি, বরং উত্তেজনা বাড়িয়ে সেনা বৃদ্ধি করে চলেছে। এমন পরিস্থিতিতে তিন বাহিনীকে জরুরি অস্ত্র কেনার জন্য বিশেষ আর্থিক ক্ষমতা দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার৷

সংবাদ সংস্থার এএনআই-এর খবর অনুযায়ী, এই বিশেষ ক্ষমতাবলে প্রকল্প পিছু ৫০০ কোটি টাকা পর্যন্ত প্রয়োজনীয় অস্ত্র এবং সরঞ্জাম কিনতে পারবে তিন বাহিনীই৷ চীনের সঙ্গে সংঘাত যদি আরো বড় আকার ধারণ করে, সেকথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷

এএনআই-কে সরকারের এক শীর্ষ সূত্র জানিয়েছে, ‘তিন বাহিনীর ভাইস চিফকেই প্রকল্প পিছু ৫০০ কোটি টাকা পর্যন্ত অস্ত্র কেনার সিদ্ধান্ত অনুমোদনের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে৷ জরুরি ভিত্তিতে দ্রুত প্রয়োজনীয় অস্ত্র এবং সরঞ্জাম যাতে কেনা যায়, সে কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷’

পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর চীনা আগ্রাসন এবং বিপুল সংখ্যায় বাহিনী মোতায়েন করার পরই এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার৷ উরি হামলা এবং বালাকোটে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পরেও দেশের সশস্ত্র বাহিনীকে একই ধরনের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছিল৷

বালাকোটে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পরে সরকারের এই সিদ্ধান্তের সবচেয়ে বেশি ফায়দা উঠিয়েছিল ভারতীয় বিমানবাহিনী৷ সেই সময় এই আর্থিক ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে স্পাইস-২০০০ এয়ার টু গ্রাউন্ড স্ট্যান্ড অফ মিসাইল, স্ট্রম অ্যাটাক এয়ার টু গ্রাউন্ড মিসাইল সহ বেশ কিছু জরুরি অস্ত্র এবং সরঞ্জাম কিনেছিল তারা৷

এর পাশাপাশি সেনাবাহিনীও ইজরায়েলের অ্যান্টি ট্যাঙ্ক গাইডেড মিসাইল এবং আমেরিকা থেকে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র কিনেছে৷ অল্প সময়ের মধ্যে বাহিনী যাতে প্রস্তুতি সারতে পারে, সেই লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর