শিরোনাম

বিদ্রহী প্রার্থী ও দলীও শৃঙ্খলা ভঙ্গে মিজানুর রহমানকে কৃষকলীগ থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, ডিসেম্বর ১১, ২০২১ ১০:১৩:৪৪ অপরাহ্ণ
বিদ্রহী প্রার্থী ও দলীও শৃঙ্খলা ভঙ্গে মিজানুর রহমানকে কৃষকলীগ থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ
বিদ্রহী প্রার্থী ও দলীও শৃঙ্খলা ভঙ্গে মিজানুর রহমানকে কৃষকলীগ থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ

আবু রায়হান, জয়পুরহাটঃ
আসন্ন ৪র্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রহী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ ও দলীও শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে মিজানুর রহমান চৌধুরী কে কৃষকলীগ থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ করেছে জয়পুরহাট জেলা কৃষক লীগ।

জেলা কৃষক লীগের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে, বাংলাদেশ কৃষক লীগ জয়পুরহাট জেলা শাখার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী আসন্ন ৪র্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জয়পুরহাট সদর উপজেলাধীন ০৬ নং আমদই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রহী প্রার্থী হয়ে আনারস প্রতিক নিয়ে উক্ত ইউনিয়নে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহানুর আলম সাবু এর নৌকা প্রতীকের প্রতিদন্দীতা করছেন।

এমতাবস্থায় জেলা কৃষক লীগের এক জরুরী বৈঠকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইউনিয়ন পরিষদ সাধারণ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর সিদ্ধান্ত অমান্য করে দলীও নৌকা প্রতিকের বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ ও দলীও শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র ২৫. (২) উপবিধি (ক) বিধি মোতাবেক মিজানুর রহমান চৌধুরীকে জয়পুরহাট জেলা কৃষক লীগের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে চূড়ান্ত বহিষ্কারের জন্য জেলা কৃষক লীগের সভাপতি এ্যাড. ফিরোজা চৌধুরী ও সাধারন সম্পাদক জালাল সরকার কর্তৃক সুপারিশ পূর্বক বাংলাদেশ কৃষক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটিতে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন, জয়পুরহাট জেলা কৃষক লীগের সাধারন সম্পাদক জালাল সরকার।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আমদই ইউনিয়নের কয়েকজন ভোটার জানান, আনারস প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান চৌধুরী তার নির্বাচনী প্রচারণার সময় এক বক্তব্যে বলেছেন, এই নির্বাচনে প্রশাসনিক সর্বাত্মক সহযোগীতা ছাড়াও প্রয়োজনে তিনি স্থানীয় প্রশাসনের পরিবর্তন করে বাহিরের প্রশাসনিক টিম আনবেন। তাই সকল ভোটার ভাই ও বোনেরা কোন সংশয় ছাড়াই ভোট দিতে আসবেন।

এ ব্যাপারে আমদই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রহী চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, নির্বাচনী প্রচারণার সময় প্রয়োজনে তিনি স্থানীয় প্রশাসনের পরিবর্তন করে বাহিরের প্রশাসনিক টিম আনবেন এ ধরনের বক্তব্য দেননি। কিছু অতি উৎসাহিত লোকজন একটু বারিয়ে বলেছেন। তিনি শুধু বলেছেন নির্বাচনে প্রশাসনের সার্বিক সহযোগীতা পাবেন। বহিষ্কারের বিষয়ে এখনো কোন নোটিশ পাননি পাননি বলেও জানান তিনি।

আমদই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানান, উক্ত নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী শাহানুর আলম সাবুর জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্নিত হয়ে মিজানুর রহমান চৌধুরী তার নির্বাচনী প্রচারণার সময় বিভিন্ন বিভ্রান্ত মূলক তথ্য ছড়াচ্ছে। এরা আসলে প্রকৃতভাবে আওয়ামী লীগ করতে আসেনি। সম-সাময়িক সুবিধা ভোগ করতে দলে প্রবেশ করেছে।
তার বিরুদ্ধে জেলা কৃষক লীগ সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us