শিরোনাম

বেসরকারি উদ্যোগে কারিগরি শিক্ষানবিশ হিসেবে জাপান যাচ্ছে তিন বাংলাদেশি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, নভেম্বর ২৮, ২০২০ ১১:২৬:৪৭ পূর্বাহ্ণ
বেসরকারি উদ্যোগে কারিগরি শিক্ষানবিশ হিসেবে জাপান যাচ্ছে তিন বাংলাদেশি
বেসরকারি উদ্যোগে কারিগরি শিক্ষানবিশ হিসেবে জাপান যাচ্ছে তিন বাংলাদেশি

বাংলাদেশ থেকে প্রথমবারের মতো বেসরকারি উদ্যোগে কারিগরি শিক্ষানবিশ হিসেবে জাপানে যাচ্ছে তিন বাংলাদেশি। প্রাথমিক ভাষা প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের দেশটিতে পাঠানো হচ্ছে। আজ শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) ঢাকার ডেমরায় অবস্থিত গ্রিনল্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, বিএমইটির মহাপরিচালক শামসুল আলম এবং গ্রিনল্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই।

রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বলেন, এই অনুষ্ঠানে আসতে পেরে আমি আনন্দিত, জাপান বাংলাদেশের পুরাতন বন্ধু। কারিগরি কর্ম দক্ষতার ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে বিভিন্নভাবে সহায়তা করার চেষ্টা করে যাচ্ছে জাপান। এই প্রশিক্ষণার্থীদের কর্ম দক্ষতা বাড়াতে সবোচ্চ চেষ্টা করবে জাপান সরকার। পরবর্তী সময়ে দক্ষ কর্মীরা জাপানে কাজের সুযোগ পাবে। এসময় তিনি গ্রীনল্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারের পৃষ্টপোষকদের ধন্যবাদ জানান। পরে রাষ্ট্রদূত জাপানে প্রশিক্ষণ নিতে যাওয়া তিনজনের হাতে তাদের ভিসা ও টিকিট তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন বলেন, ‘টেকনিক্যাল ইন্টার্ন’ হিসেবে তারা জাপানে বিনা খরচে প্রশিক্ষণ নিতে যাচ্ছে। তারা ভালো মানের বেতন পাবে সেই সঙ্গে সেখানে তাদের কর্ম পরিবেশ অত্যন্ত ভালো হবে। এছাড়া তিন বছর পর তারা নির্দিষ্ট পরিমান একটা এমাউন্ট নিয়ে দেশে ফেরত আসবে। পরবর্তীতে দেশে এসে তারা কারিগরি কাজে যোগদান করতে পারবে, সেক্ষেত্রে সরকার তাদের সহায়তা করবে। এমনকি তিন বছরের দক্ষতা অনুযায়ী কাজের জন্য জাপানে ফিরে যেতে পারবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে গ্রিনল্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই প্রবাস বার্তাকে জানান, ‘গত ১০ বছর ধরে আমরা এই ট্রেনিং সেন্টার পরিচালনা করে আসছি। এখান থেকে ট্রেনিং নিয়ে প্রায় ছয় হাজার কর্মী মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে গিয়েছে। এছাড়া আমাদের এই ট্রেনিং সেন্টারের এপ্রুভাল মালয়েশিয়া সহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে রয়েছে। বিদেশে কর্ম সংস্থানের ক্ষেত্রে প্রাথমিক ধাপ হিসেবে এখানে প্রশিক্ষণ নিয়ে পরবর্তী সময়ে তাদের ভিসার আবেদন করা হয়। পরে বিভিন্ন দেশে নিজ নিজ যোগ্যতা অনুযায়ী তাদের কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়।’

২০১৭ সাল থেকে কারিগরি শিক্ষানবিশ হিসেবে কিছু কর্মী যাচ্ছেন জাপানে। জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণ না নিয়ে কেউ জাপানে যাওয়ার সুযোগ পাবেন না। তাই প্রশিক্ষণের আওতা বাড়াতে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে বেসরকারি জনশক্তি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোকে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয় প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us