শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জলদুস্যদের অত্যাচারে অসহায় একটি জেলে পল্লী

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, অক্টোবর ২১, ২০২০ ৯:৩২:১০ অপরাহ্ণ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জলদুস্যদের অত্যাচারে অসহায় একটি জেলে পল্লী
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জলদুস্যদের অত্যাচারে অসহায় একটি জেলে পল্লী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজিলার দুই নং ধরখার ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর একটি দ্বীপ গ্রাম।আধুনিক জীবন ব্যবস্থা ও সুযোগ বঞ্চিত  এই দ্বীপ গ্রামটি তে ৩০০ টি পরিবারে প্রায় এক হাজার লোক  বসবাস করে যাদের অধিকাংশ জেলে।মৎস্যজীবী পেশায় নিয়োজিত এই জেলে পল্লী বনগজ গ্রামের জল দুস নূর ইসলাম পিতা জিতু মিয়া,মজনু  মিয়া পিতা নসু মিয়া,রমজান মিয়া পিতা আব্দুল লতিফ, আলিম পিতা আসগর আলী ,মোগ্গল মিয়া পিতা আকরাম হোসেন সহ অনেকে একটানা গত ২০ বছর ধরে জোর  পূর্বক দখল করে কৃষ্ণ নগর গ্রামের মৌজার জলাশয় গুলো ভুগ করতেছে।কৃষ্ণ নগর গ্রামের মৌজার  পশ্চিমে মুড়ি পাড়া ,উত্তরে ঘাটিয়ারা, দক্ষিণে বনগজ  ও পূর্বে বরিশাল।বাংলাদেশ সরকারের মৎস্যজীবী ও জলাশয় আইন অনুযায়ী যার যার মৌজার জলাশয় /বিল সেই সেই এলাকার মৎস্যজীবী জেলেদের।কৃষ্ণনগর গ্রামের এই জেলে পল্লীর সবাই সরকার থেকে মৎসজীবি কার্ড পেলেও নামতে পারছে না তাদের মৌজার  বিল/জলাশয়ে।বনগজ গ্রামের জল দস্যরা এলাকার প্রবাশালীদেরকে নিয়ে ও  কিছু অসাধু কর্মকর্তাদের সহায়তায় কৃষ্ণ নগর মৌজার বিল /জলাশয় ভোগ দখল করে আসছে।কৃষ্ণ নগর মৌজার জলাশয় /বিলে মাছ ধরার অধিকার শুধু মাত্র ওই গ্রামের (কৃষ্ণনগর )গ্রামের মৎস্যজীবি সমিতির।বনগজ গ্রামের জল দস্যুদের অত্যাচারে অসহায় কৃষ্ণনগর গ্রামের এক হাজার মানুষের জেলে পল্লী।সুবিধা বঞ্চিত ও অসহায় এই জেলে পল্লী  সরকারের কাছে অকুল আবেদন যাতে সরকার ও প্রশাসন  এই বেপারে সুদৃষ্টি দেই।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর