শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বীর মুক্তি যোদ্ধার জোরপূর্বক ফসলী জমি দখল

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শুক্রবার, মে ৮, ২০২০ ১০:৫৭:১৬ পূর্বাহ্ণ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বীর মুক্তি যোদ্ধার জোরপূর্বক ফসলী জমি দখল
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বীর মুক্তি যোদ্ধার জোরপূর্বক ফসলী জমি দখল

নিজিস্ব প্রতিবেদক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজেলার ধরখার উনিয়নের বনগজ গ্রামের পশ্চিম পাড়ার বাসিন্দা, ৭১ রণাঙ্গণের সাহসী সৈনিক, বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমানের ফসলী জমি জোরপূর্বক দখল করে নিয়েছে একই পাড়ার আব্দুল লতিফের ছেলে মোঃ রমজান মিয়া ও তার গংরা।

বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমান অভিযোগ করেন, তাঁদের জমিজমা থাকলেও তেমন লোকবল নেই। এই দুর্বলতা কাজে লাগিয়ে প্রতিপক্ষ জোর খাটিয়ে  ঐখানে আব্দুল লতিফের ছেলে মোঃ রমজান মিয়া ও তার গংরা জোর করে খুঁটি গেড়ে জমি দখল করে নেন।

এ ঘটনার পর তিনি এলাকায় দেনদরবার করেও জমি দখলমুক্ত করতে পারেননি।

সবকিছুতে ব্যর্থ হয়ে ঘটনাটি সাংবাদিকদের অবগত করে বিচার দাবি করেছে জমি মালিকপক্ষ বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমান ।

ভূমিদস্যু মোঃ রমজান মিয়া ও তার গং রা এর আগে আরেকবার মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমানের জমি দখল করে নিলে দেনদরবারের মাধমে তা ফিরে পান।

কেনা জমি দখলের প্রসঙ্গে বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমান দুঃখ করে বলেন,কোথাও বিচার নাই।এ যেন মুগের মল্লুক।আমার কেনা জমি জোরপূর্বক মোঃ রমজান মিয়া ও তার গং রা খুটি বসিয়ে দখল করে নিয়েছেন।এই রমজান মিয়া ও তার গংরা ২০১৭ সলে বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমানের অন্য আরেক টি জমি দখল করে নিলে  তৎকালীন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এস পি  মহোদয় ও ধরখার উনিয়নের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে নিস্পত্তি হয়।

অসহায় বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমানের করুন কষ্টের কথা শুনার কোনো লোক নেই ।সবকিছুতে ব্যর্থ হয়ে ঘটনাটি সাংবাদিকদের অবগত করে বিচার দাবি করেছে ৭১ রণাঙ্গণের সাহসী সৈনিক, বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমান।তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার প্রশাসনের ও প্রধান মন্ত্রীর হস্তকেপ কামনা করেন।সাংবাদিক ঘটনার সরোজমিনে গেলে ঘটনার সত্যতা পায়।রমজান ও তার গংরা বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমানের কেনা জমি জোরপূবক দখল করে সেখানে সিমেন্টের তৈরি খুটি বসিয়ে দিয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর