শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় টর্নেডোর আঘাতে ১৫ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বৃহস্পতিবার, জুন ১৮, ২০২০ ১০:০০:১০ অপরাহ্ণ
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ২টি গ্রামের ওপর দিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে বয়ে যাওয়া টর্নেডোর আঘাতে কমপক্ষে ১৫টি বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এসমসয় গ্রামের বেশ কিছু গাছপালা ভেঙে পড়েছে। বিদ্যুত সরবরাহ ব্যবস্থার ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয়রা জানায়, সকাল সাড়ে ৮টায় বাসুদেব, আহরন্দ দক্ষিণ পাড়া এলাকায় টর্নেডোর আঘাত হানে। এর প্রচন্ড আঘাতে বেশ কিছু ঘরবাড়ি ও গাছপালা উড়তে থাকে। এতে ৫ টি বাড়ি সম্পূর্ণ ও ১০ বাড়ি আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ ঘটনায় সুফিয়া বেগম (৬০) নামে এক নারী আহত হয়েছেন। তিনি আহরন্দ গ্রামের দক্ষিণপাড়ার মৃত শুক্কুর মিয়ার স্ত্রী। আহত সুফিয়া বেগম জানান, সকালে হঠাৎ করে প্রচন্ড বেগে বাতাস বইতে থাকে। এসময় ঘরের মধ্যে আগুনের মতো আলো জ্বলতে দেখেন তিনি। কোনোকিছু বুঝে উঠার আগেই টর্নেডোর আঘাতে তার ঘরের চালা উড়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শী আহরন্দ গ্রামের মোতালিব মিয়া জানান, সকালে তীব্র শব্দ শুনতে পান তিনি। ঘর থেকে বেরিয়ে আগুনের মতো কিছু একটা আকাশে ঘুরতে দেখেন। কিছু বোঝার আগেই আশপাশের ঘরবাড়ির চালা উড়িয়ে নিয়ে যেতে দেখেন তিনি। খবর পেয়ে সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়ুয়া গ্রামগুলো পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের সাথে কথা বলে তাৎক্ষণিকভাবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি পরিবারকে ৩ বান ঢেউটিন ও নগদ ৬ হাজার টাকা, আংশিক ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ১ বান ঢেউটিন ও নগদ ৩ হাজার টাকা এবং উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোকে ১০ হাজার টাকা করে দেয়ার ঘোষনা দেন। পরে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার দেয়া হয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ২টি গ্রামের ওপর দিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে বয়ে যাওয়া টর্নেডোর আঘাতে কমপক্ষে ১৫টি বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এসমসয় গ্রামের বেশ কিছু গাছপালা ভেঙে পড়েছে। বিদ্যুত সরবরাহ ব্যবস্থার ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয়রা জানায়, সকাল সাড়ে ৮টায় বাসুদেব, আহরন্দ দক্ষিণ পাড়া এলাকায় টর্নেডোর আঘাত হানে। এর প্রচন্ড আঘাতে বেশ কিছু ঘরবাড়ি ও গাছপালা উড়তে থাকে। এতে ৫ টি বাড়ি সম্পূর্ণ ও ১০ বাড়ি আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ ঘটনায় সুফিয়া বেগম (৬০) নামে এক নারী আহত হয়েছেন। তিনি আহরন্দ গ্রামের দক্ষিণপাড়ার মৃত শুক্কুর মিয়ার স্ত্রী। আহত সুফিয়া বেগম জানান, সকালে হঠাৎ করে প্রচন্ড বেগে বাতাস বইতে থাকে। এসময় ঘরের মধ্যে আগুনের মতো আলো জ্বলতে দেখেন তিনি। কোনোকিছু বুঝে উঠার আগেই টর্নেডোর আঘাতে তার ঘরের চালা উড়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শী আহরন্দ গ্রামের মোতালিব মিয়া জানান, সকালে তীব্র শব্দ শুনতে পান তিনি। ঘর থেকে বেরিয়ে আগুনের মতো কিছু একটা আকাশে ঘুরতে দেখেন। কিছু বোঝার আগেই আশপাশের ঘরবাড়ির চালা উড়িয়ে নিয়ে যেতে দেখেন তিনি। খবর পেয়ে সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়ুয়া গ্রামগুলো পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের সাথে কথা বলে তাৎক্ষণিকভাবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি পরিবারকে ৩ বান ঢেউটিন ও নগদ ৬ হাজার টাকা, আংশিক ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ১ বান ঢেউটিন ও নগদ ৩ হাজার টাকা এবং উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোকে ১০ হাজার টাকা করে দেয়ার ঘোষনা দেন। পরে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার দেয়া হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ২টি গ্রামের ওপর দিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে বয়ে যাওয়া টর্নেডোর আঘাতে কমপক্ষে ১৫টি বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এসমসয় গ্রামের বেশ কিছু গাছপালা ভেঙে পড়েছে। বিদ্যুত সরবরাহ ব্যবস্থার ক্ষতি হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, সকাল সাড়ে ৮টায় বাসুদেব, আহরন্দ দক্ষিণ পাড়া এলাকায় টর্নেডোর আঘাত হানে। এর প্রচন্ড আঘাতে বেশ কিছু ঘরবাড়ি ও গাছপালা উড়তে থাকে। এতে ৫ টি বাড়ি সম্পূর্ণ ও ১০ বাড়ি আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ ঘটনায় সুফিয়া বেগম (৬০) নামে এক নারী আহত হয়েছেন। তিনি আহরন্দ গ্রামের দক্ষিণপাড়ার মৃত শুক্কুর মিয়ার স্ত্রী।

আহত সুফিয়া বেগম জানান, সকালে হঠাৎ করে প্রচন্ড বেগে বাতাস বইতে থাকে। এসময় ঘরের মধ্যে আগুনের মতো আলো জ্বলতে দেখেন তিনি। কোনোকিছু বুঝে উঠার আগেই টর্নেডোর আঘাতে তার ঘরের চালা উড়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শী আহরন্দ গ্রামের মোতালিব মিয়া জানান, সকালে তীব্র শব্দ শুনতে পান তিনি। ঘর থেকে বেরিয়ে আগুনের মতো কিছু একটা আকাশে ঘুরতে দেখেন। কিছু বোঝার আগেই আশপাশের ঘরবাড়ির চালা উড়িয়ে নিয়ে যেতে দেখেন তিনি।
খবর পেয়ে সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়ুয়া গ্রামগুলো পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের সাথে কথা বলে তাৎক্ষণিকভাবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি পরিবারকে ৩ বান ঢেউটিন ও নগদ ৬ হাজার টাকা, আংশিক ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ১ বান ঢেউটিন ও নগদ ৩ হাজার টাকা এবং উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোকে ১০ হাজার টাকা করে দেয়ার ঘোষনা দেন। পরে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার দেয়া হয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর