শিরোনাম

ভারতের কোনো অংশ দখল করেনি চীন : মোদি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, জুন ২০, ২০২০ ৯:৩০:০০ অপরাহ্ণ
ভারতের কোনো অংশ দখল করেনি চীন : মোদি
ভারতের কোনো অংশ দখল করেনি চীন : মোদি

ভারতের কোনো অংশ দখল করতে পারেনি চীনের সেনাবাহিনী৷ শুক্রবার লাদাখ নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠকে এমনই বার্তা দিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ একই সঙ্গে তিনি আশ্বস্ত করে বলেছেন, সীমান্তের নিরাপত্তায় যথেষ্ট সক্ষম দেশের সেনাবাহিনী৷ তাদের উপরেও দেশের পূ্র্ণ আস্থা রয়েছে দেশবাসীর৷ কোনো বাহ্যিক চাপের কাছে ভারত নতিস্বীকার করবে না বলেও আশ্বস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ ভারতের সুরক্ষায় যা যা করণীয়, তা করা হবে বলেই সর্বদলীয় বৈঠকে জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি৷ একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, পরিস্থিতি অনুযায়ী পদক্ষেপ করার জন্য সেনাবাহিনীকে পূর্ণ স্বাধীনতা দেয়া হয়েছে৷

চীনা সেনা ভারতীয় এলাকা দখল করেছে কিনা বা অনুপ্রবেশ ঘটিয়েছে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস৷ এ দিন সর্বদল বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, চীনা সেনা সীমান্ত পেরিয়ে ভারতীয় এলাকায় অনুপ্রবেশ ঘটায়নি, কোনো পোস্টও দখল করেনি৷ তিনি বলেন, ‘আমাদের ২০ জন সেনা নিহত হয়েছেন ঠিকই, কিন্তু যারা ভারত মাতার দিকে চোখে তুলে তাকিয়েছিল, তাদেরকে তারা উচিত শিক্ষা দিয়েছেন৷’

সেনাবাহিনীর উপর পূর্ণ আস্থা রেখে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমাদের সেনাবাহিনীর উপরে দেশবাসীর পূর্ণ আস্থা রয়েছে৷ আমি সেনাবাহিনীকেও আশ্বস্ত করতে চাই, গোটা দেশ তাদের সঙ্গে রয়েছে৷’ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সেনাবাহিনীকে পূর্ণ স্বাধীনতা সরকার দিয়েছে বলেও সর্বদল বৈঠকে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷

নরেন্দ্র মোদি এ দিন আরো দাবি করেছেন, ভারত কোনো দিন বাহ্যিক চাপের কাছে নতিস্বীকার করেনি৷ এ বারেও দেশের নিরাপত্তায় যা করণীয়, তা করা হবে৷ প্রধানমন্ত্রী আরো জানান, উন্নত পরিকাঠামোর সাহায্যে দুর্গম এলাকাতেও সেনার হাতে জরুরি সরঞ্জামের সহজে পৌঁছে দেয়া সম্ভব হচ্ছে৷

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘উন্নত পরিকাঠামোর সাহায্যে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় নজরদারি আরো সহজ হয়েছে৷ এর ফলে আমরা প্রতিনিয়ত পরিস্থিতির উপরে নজরদারি চালাতে পারছি এবং সেই অনুযায়ী দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হচ্ছে৷’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ভারত শান্তি এবং বন্ধুত্বের পক্ষে৷ কিন্তু দেশেক অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্বের সঙ্গে কোনও আপস করা হবে না৷ এ দিন কুড়িটি রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ বৈঠকে হাজির ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং৷

বৈঠকে সব দলই চীনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সরকারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছে৷

এই বৈঠকের প্রথম বক্তা ছিলেন কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধি। তিনি বলেন, “এই বৈঠক আরো আগে ডাকার দরকার ছিল। বিশেষ করে লাদাখে চীনা অনুপ্রবেশ নিয়ে অবগত হওয়ার পর সরকারের উচিত ছিল বৈঠক ডাকা। দেশের ভূখণ্ড রক্ষায় সরকারের সিদ্ধান্তের পাশেই পাথরের মতো থাকবে গোটা দেশ।” এমনকি দেশের সামরিক বাহিনীর কর্মদক্ষতার প্রতি বিশ্বাস আছে কংগ্রেসের। এদিন এমন মন্তব্য করেছেন কংগ্রেস সভানেত্রী।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর