শিরোনাম

“ভুলবাকুটিয়ার অপরূপ লীলাভূমি

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : রবিবার, ডিসেম্বর ২৭, ২০২০ ৮:২০:১৮ পূর্বাহ্ণ
"ভুলবাকিটিয়ার অপরূপ লীলাভূমি"
“ভুলবাকিটিয়ার অপরূপ লীলাভূমি”

ভুলবাকুটিয়া মনোমুগ্ধকর একটি গ্রামের নাম। গ্রামটি খুবই সরু ও সরলগামী। সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানাতে মিলেছে অপরূপ বৈচিত্র্যময়ের ছড়াছড়ি। পাশ দিয়ে বহমান হুরাসাগ নদী। চারপাশে নানা রঙ বেরঙ্গের হলুদ মাখা সরিষার কুড়ি। বিস্তৃত মাঠ জুড়ে হলুদ সবুজের সমারোহ। যেন বিজয়ের মাসে বিজয়ের প্রতিচ্ছবি। যে দিকেই চোখ যায়, দু’আঁখি শীতল নয়নে ফিরে তাকায়। অনেক সুন্দর বৈচিত্রের মাঝে আশায় বুক বেঁধে আছে বাংলার কৃষকেরা। হলুদের ফুলে ফুলে মুখরিত প্রান্তিক জনগণ।  বিস্তৃত মাঠের মাঝে নব্য  নির্মিত পাকা সড়ক।  প্রকৃতির এ মনোরম দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হাজারো পরিবার। পাশাপাশি মধু আহোরণ করে লাভবান হচ্ছে অস্থায়ী মৌ চাষীরা।

আর.এস রেকর্ড সূত্রে জানা যায়, হলদে ফুল সরিষা চাষের পাশাপাশি ২৫৭.৬০ একর বা ৭৮০.৬০ বিঘা জমিতে ধান চাষসহ অন্যন্যা কৃষি আবাদি ভূমি রয়েছে। দিনের পর দিন এলাকাতে হচ্ছে উন্নয়নের মেলা।
যেখানে ভ্যান-গাড়ী কল্পনাহীন,  সেখানে আজ অহরোহ জনগণের সমাগম ও পর্যটন এলাকা। এমনকি গ্রামটির উত্তর পাশে রয়েছে প্রয়োজনীয় সকল দোকানপাট। শীতের আমেজে চায়ের দোকানে সবাই একত্রে মিলে গায় সাম্যের গান। মনে পড়ে যায় সেই চরণটি ” দশে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাহি লাজ। গ্রামটিতে রয়েছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি স্বাস্থ্য  কমিউনিটি সেন্টার। পাঠশালা থাকায় শিক্ষার প্রতি আগ্রহ বাড়ছে পর্যায়ক্রমে। চিকিৎসার জন্য রয়েছে জরুরী ব্যবস্থা।
সব মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে আগামীর পথচলায়।
জনগণ সূত্রে জানা যায়, গ্রামটিতে আছে নানান পেশার মানুষ। যেমনঃ শিক্ষক, সচিব, ইন্জিনিয়ার, ব্যবসায়ী, তাঁতি, জেলে,  গার্মেন্টস কর্মী, আলেম সমাজ, কৃষিআবাদি সরকারি ও বেসরকারিসহ নানান পেশার মানুষ। এমনকি শিক্ষিতের হার রয়েছে সংখ্যাধিক্য।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us