শিরোনাম

মিরসরাইয়ে পরকীয়ার জেরে তিন সন্তানের জনকের আত্মহত্যা

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, অক্টোবর ৩১, ২০২২ ১২:০০:০৫ অপরাহ্ণ

মিরসরাই প্রতিনিধি

মিরসরাইয়ে পরকীয়ার জেরে মাছের বিষাক্ত গ্যাসের ঔষধ খেয়ে নাজিম উদ্দিন সাইফুল (৪২) নামে তিন সন্তানের জনক আত্মহত্যা করেছে। শনিবার (২৯ অক্টোবর) দিবাগত রাত সাড়ে বারোটা দিকে উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের চুনিমিঝিরটেক গ্রামের সিরাজ মিয়ার বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটেছে। আত্নহত্যা করে মৃত্যুবরণ করা সাইফুল ঐ বাড়ির মৃত আনোয়ার আলমের পুত্র ও তিন সন্তানের জনক।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইছাখালী ইউনিয়নের (টেকেরহাট) চুনিমিঝিরটেক গ্রামের সিরাজ মিয়ার বাড়ীর (একই বাড়ীর) এক গৃহবধূর সাথে পরকীয়া সম্পর্কের জেরে শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে বারোটা দিকে মাছের বিষাক্ত গ্যাসের ঔষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করে। রবিবার (৩০ অক্টোবর) দুপুরে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এবিষয়ে ইছাখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৭৮৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য জোহরা বেগম জানান, দীর্ঘ সাত বছর যাবৎ একই বাড়ীর এক গৃহবধূর সাথে পরকীয়ায় লিপ্ত হওয়ায় অভিযুক্ত হিসেবে একাধিকবার গ্রাম্য সালিশ করে বিষয়টি মিমাংসা করা হলেও তারা বারবার পরকীয়ার জড়িয়ে পড়ে। মাঝখানে কিছুদিন যোগাযোগ বন্ধ থাকার পরে সম্প্রতি পুনরায় পরকীয়ায় জড়িত হলে উভয়ের দাম্পত্য জীবনে কলহ বিবাদের জেরে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িত নারীর উপর ক্ষোভ ও অভিমানের কারণে পরকীয়া প্রেমিক সাইফুল আত্মহত্যা করেছে।

জোরারগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, পরকীয়ার জেরে নাজিম উদ্দিন সাইফুল নামের এক যুবক বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মস্তান নগর ভর্তি করার পর সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। সেখান থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) প্রেরণ করা হয়। পরকীয়া প্রেমিকের উপর ক্ষোভ ও অভিমানে মাছের বিষাক্ত গ্যাসের ঔষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। এবিষয়ে জোরারগঞ্জ থানায় অপমৃত্যু মামলা রজু করে রবিবার সন্ধ্যায় সাইফুলের স্ত্রী নাসিমা আক্তারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

Spread the love
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us