শিরোনাম

মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন নির্মাণ কাজে দরপত্র প্রদানে অনিয়মের অভিযোগ

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২১ ১০:২৬:২০ পূর্বাহ্ণ
মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন নির্মাণ কাজে দরপত্র প্রদানে অনিয়মের অভিযোগ
মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন নির্মাণ কাজে দরপত্র প্রদানে অনিয়মের অভিযোগ

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
তালবাহানা করে সময়ক্ষেপন করছেন দাবি করে মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন নির্মাণ কাজে দরপত্রের লটারী না করে নিজস্ব ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দেয়ার জন্য তালবাহানা করে সময়ক্ষেপন করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

এব্যপারে বৃহস্পতিবার বিকেলে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের তালিকাভূক্ত ত্রিশটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

লিখিত আবেদনে উল্লেখ করা হয়, গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ কাজে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা দরপত্রের লটারী না করে নিজস্ব ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দেয়ার জন্য তালবাহানা করে সময়ক্ষেপন করছেন। এতে সাধারন ঠিকাদাররা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে জানিয়ে জেলার অন্য উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা একই প্রকল্পের কাজ ইতিমধ্যে লটারীর মাধ্যমে ঠিকাদার নির্বাচিত করেছেন বলে আবেদনে উল্লেখ আছে।

সময়ক্ষেপন করা হচ্ছে অভিযোগের সত্যতা নেই দাবি করে আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান বলেন, ইউপি নির্বাচনে ব্যস্ততার কারনে এ কাজে একটু বিলম্ব হচ্ছে। ইউপি নির্বাচনের পরপরই আবাসন নির্মাণ কাজের লটারী সেরে ফেলারও আশাবাদী তিনি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, সারা দেশের ন্যায় গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে ১২জন অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা তাদের নিজের ভিটায় দুইটি বেড, দুইটি টয়লেট, ডাইনিং ও কিচেনসহ ৬৩৫ বর্গফুটের এই ঘর তৈরি করে দেওয়া হবে। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ডিপিপি প্রকল্প গঠন করে সারাদেশে প্রায় ৪ হাজার ১২৩ কোটি টাকায় ‘অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ’ শীর্ষক একটি প্রকল্প নেওয়া হয়। প্রকল্পের কাজ ২০২৩ সালের মধ্যে শেষ করা হবে বলে জানা যায় । প্রতিটি ঘর তৈরিতে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ লাখ ৪৩ হাজার ৬১৮ টাকা।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us