শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে বঙ্গবন্ধুর খুনী রাশেদের নথি তলব

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : শনিবার, জুলাই ২৫, ২০২০ ৫:২৬:৫৫ অপরাহ্ণ
যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে বঙ্গবন্ধুর খুনী রাশেদের নথি তলব
যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে বঙ্গবন্ধুর খুনী রাশেদের নথি তলব

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনী ও ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মেজর (বরখাস্ত) রাশেদ চৌধুরীর যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় লাভ চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। প্রায় ১৫ বছর পর দেশটির আদালত তার রাজনৈতিক আশ্রয় লাভের ফাইল তলব করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল বিল বার ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে এই আবেদনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে তাদের প্রতিক্রিয়া জমা দেওয়ার সময়সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছেন।

১৫ বছর আগে বাংলাদেশের সেনাবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা রাশেদের রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন মঞ্জুর করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। মিথ্যা তথ্য দিয়ে রাজনৈতিক আশ্রয় লাভ প্রমাণিত হলে খুনী রাশেদ চৌধুরীকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে। সেক্ষেত্রে তাকে বাংলাদেশেই ফেরত পাঠানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে রাশেদ চৌধুরীর রাজনৈতিক আশ্রয় লাভের মামলার ফাইল তলব হওয়াকে বাংলাদেশ সরকারের কূটনৈতিক প্রচেষ্টা ফল বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি ইত্তেফাককে বলেন, রাশেদ চৌধুরী জাতির জনকের আত্মস্বীকৃত খুনী। মিথ্যা তথ্য দিয়ে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক আশ্রয় লাভ করেছেন। একজন আত্মস্বীকৃত খুনী যুক্তরাষ্ট্রের আইনে রাজনৈতিক আশ্রয় লাভের অযোগ্য। তার এ দেশে থাকার অধিকার নেই। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন বিভিন্ন সময় রাশেদ চৌধুরীকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাতে নানান কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছিলেন। সেই প্রচেষ্টা সফল হতে চলেছে।

এদিকে রাশেদ চৌধুরীর রাজনৈতিক আশ্রয় লাভের মামলার ফাইল তলব হওয়ায় নিউইয়র্কে আনন্দ সমাবেশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের ৭৩ স্ট্রিটে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম, সমাজকল্যাণ সম্পাদক সোলায়মান আলী, কার্যকরী সদস্য শাহানারা রহমান, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের নেতা হোসেন সোহেল রানা প্রমুখ।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর