শিরোনাম

যৌনতা ও খাবারের আনন্দ ঈশ্বর প্রদত্ত

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২০ ১১:২২:১৮ অপরাহ্ণ
যৌনতা এবং ভালোভাবে রান্না করা খাবার খাওয়ার বিষয়কে সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে পাওয়া আনন্দ বা ঐশ্বরিক আনন্দ হিসেবে বর্ণনা করেছেন পোপ ফ্রান্সিস। পোপ ফ্রান্সিস আরো বলেছেন, আনন্দ সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে। এটি না ক্যাথলিক, না খ্রিস্টান কিংবা অন্য কিছু নয়; কেবল ঐশ্বরিক বিষয়। নতুন একটি বইয়ে তার সাক্ষাৎকার প্রকাশ হয়েছে, সেখানেই এসব তথ্য উঠে এসেছে। ওই বইয়ে পোপ ফ্রান্সিসকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, খাবারে এবং যৌনতায় যে আনন্দ, তা সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে। পোপ ফ্রান্সিস গির্জার কিছু নেতাদের সমালোচনা করেছেন, যারা অতীতে মনে করতেন- যৌনতা ও খাবার উপভোগ করা পাপের কাজ। এতে করে খ্রিস্টানদের সম্পর্কে ভুল বার্তা গেছে। গির্জা সবসময় অমানবিক, বর্বর, অশ্লীল আনন্দের নিন্দা করে; অন্যদিকে মানবিকতা, সরলতা, নৈতিকতা ও আনন্দকে মেনে নেয়। তিনি আরো বলেন, খাবারের আনন্দ শরীর ভালো রাখতে সহায়তা করে। তেমনিভাবে যৌন আনন্দ ভালোবাসার সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে সহায়তা করে। আর এতে করে মানবজাতি দীর্ঘ সময় টিকে থাকার গ্যারান্টি পায়।
যৌনতা এবং ভালোভাবে রান্না করা খাবার খাওয়ার বিষয়কে সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে পাওয়া আনন্দ বা ঐশ্বরিক আনন্দ হিসেবে বর্ণনা করেছেন পোপ ফ্রান্সিস। পোপ ফ্রান্সিস আরো বলেছেন, আনন্দ সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে। এটি না ক্যাথলিক, না খ্রিস্টান কিংবা অন্য কিছু নয়; কেবল ঐশ্বরিক বিষয়। নতুন একটি বইয়ে তার সাক্ষাৎকার প্রকাশ হয়েছে, সেখানেই এসব তথ্য উঠে এসেছে। ওই বইয়ে পোপ ফ্রান্সিসকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, খাবারে এবং যৌনতায় যে আনন্দ, তা সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে। পোপ ফ্রান্সিস গির্জার কিছু নেতাদের সমালোচনা করেছেন, যারা অতীতে মনে করতেন- যৌনতা ও খাবার উপভোগ করা পাপের কাজ। এতে করে খ্রিস্টানদের সম্পর্কে ভুল বার্তা গেছে। গির্জা সবসময় অমানবিক, বর্বর, অশ্লীল আনন্দের নিন্দা করে; অন্যদিকে মানবিকতা, সরলতা, নৈতিকতা ও আনন্দকে মেনে নেয়। তিনি আরো বলেন, খাবারের আনন্দ শরীর ভালো রাখতে সহায়তা করে। তেমনিভাবে যৌন আনন্দ ভালোবাসার সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে সহায়তা করে। আর এতে করে মানবজাতি দীর্ঘ সময় টিকে থাকার গ্যারান্টি পায়।

যৌনতা এবং ভালোভাবে রান্না করা খাবার খাওয়ার বিষয়কে সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে পাওয়া আনন্দ বা ঐশ্বরিক আনন্দ হিসেবে বর্ণনা করেছেন পোপ ফ্রান্সিস।

পোপ ফ্রান্সিস আরো বলেছেন, আনন্দ সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে। এটি না ক্যাথলিক, না খ্রিস্টান কিংবা অন্য কিছু নয়; কেবল ঐশ্বরিক বিষয়।

নতুন একটি বইয়ে তার সাক্ষাৎকার প্রকাশ হয়েছে, সেখানেই এসব তথ্য উঠে এসেছে। ওই বইয়ে পোপ ফ্রান্সিসকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, খাবারে এবং যৌনতায় যে আনন্দ, তা সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে।

পোপ ফ্রান্সিস গির্জার কিছু নেতাদের সমালোচনা করেছেন, যারা অতীতে মনে করতেন- যৌনতা ও খাবার উপভোগ করা পাপের কাজ। এতে করে খ্রিস্টানদের সম্পর্কে ভুল বার্তা গেছে। গির্জা সবসময় অমানবিক, বর্বর, অশ্লীল আনন্দের নিন্দা করে; অন্যদিকে মানবিকতা, সরলতা, নৈতিকতা ও আনন্দকে মেনে নেয়।

তিনি আরো বলেন, খাবারের আনন্দ শরীর ভালো রাখতে সহায়তা করে। তেমনিভাবে যৌন আনন্দ ভালোবাসার সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে সহায়তা করে। আর এতে করে মানবজাতি দীর্ঘ সময় টিকে থাকার গ্যারান্টি পায়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর