শিরোনাম

রংপুরে গঙ্গাচড়া ইউএনওর গাড়ীর গ্যারেজের ছাদ ভেঙে পড়ে শিক্ষার্থী এবং শ্রমিক মৃত্যু

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২২ ৯:৪৫:২০ অপরাহ্ণ
রংপুরে গঙ্গাচড়া ইউএনওর গাড়ীর গ্যারেজের ছাদ ভেঙে পড়ে শিক্ষার্থী এবং শ্রমিক মৃত্যু
রংপুরে গঙ্গাচড়া ইউএনওর গাড়ীর গ্যারেজের ছাদ ভেঙে পড়ে শিক্ষার্থী এবং শ্রমিক মৃত্যু
রংপুরের গঙ্গাচড়ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এর সরকারি বাসভবনের পাশে গাড়ীর রাখার গ্যারেজের ছাদ ভেঙে পড়ে এক শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।
গতকাল সোমবার সকাল অনুমান দশটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত শিক্ষার্থী উপজেলার বেতগাড়ী ইউনিয়নের পুটিমারি এলাকার কালিপদ রায়ের পুত্র দিপক রায়।
প্রত্যক্ষদর্শরী জানায়, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে চলচিল মহান ২১ ফেব্রুয়ারী ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে পালন করা হচ্ছিলো বিভিন্ন কর্মসূচি। আর কর্মসূচির অংশ হিসেবে উপজেলা পরিষদ হলরুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এরশাদ উদ্দিন পিএএ, ভাইস চেয়ারম্যান সাজু আহম্মেদসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সরকারি বাসভবনের পাশে গাড়ী রাখার গ্যারেজের রংয়ের কাজ করছিলো শিক্ষার্থী দীপক (২৪) ও তার ছোট ভাই শিক্ষার্থী খোকন (২১) সহ কয়েকজন শ্রমিক।
উপজেলা মাঠে আসা কয়েকজন যুবক জানান, হঠাৎ তারা ইউএনওর বাসার ভিতর শব্দ ও কান্না শুনতে পেয়ে সেখানে গিয়ে দেখেন ওই শ্রমিকের ওপর ছাদ ভেঙে পড়ে মাথা থেতলা মৃত্যু অবস্থায় পড়ে আছে। এদিকে ঘটনার সংবাদ পেয়ে আলোচনা সভাস্থল থেকে ঘটনাস্থলে আসেন মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এরশাদ উদ্দিন পিএএ, ভাইস চেয়ারম্যান সাজু আহম্মেদ লাল, ওসি সুশান্ত কুমার সরকার, ফায়ার সার্ভিস সদস্যরাসহ সরকারি কর্মকর্তা, বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ। মৃতের ছোট ভাই খোকন (২০) কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমি ও আমার বড় ভাই দীপক (২৪) দুজনে লেখাপড়া করি। ভাই দিপক গঙ্গাচড়া সরকারি কলেজের ডিগ্রি ৩য় বর্ষের ছাত্র আর আমি খলেয়া খাপরিখাল স্কুল এন্ড কলেজের ইন্টার ২য় বর্ষের ছাত্র।
বাবার বয়স হওয়ায় এবং সংসার একটু অসচ্ছল থাকায় আমরা দুভাই লেখাপড়ার পাশাপাশি কলেজ বন্ধ থাকলে কাজ করি। করোনায় কলেজ বন্ধ থাকায় বেশ কিছুদিন থেকে রং শ্রমিকের কাজ করছি। গ্যারেজটি রং করার পরিস্কার করছিলাম ভাইসহ কয়েকজন আমরা। ভাই মই দিয়ে গ্যারেজের ছাদ পরিস্কার করছিলো।
হঠাৎ ছাদের সামনের অংশ ভেঙে পড়ে এতে ভাই ভেঙে পড়া ছাদের নিচে পড়ে মৃত্যু হয়। খোকন কেদে আরো বলে, ভাইয়ের স্বপ্ন ছিলো লেখাপড়া করে একটা চাকুরি করে সংসারে সচ্ছলতা ফিরে আনবে এবং বাবা-মার মুখে হাসি ফুটাবে। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস ভাইয়ের সে আশা পুরুন হলনা। এদিকে এমপি মসিউর রহমান রাঙ্গা, উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এরশাদ উদ্দিন পিএএ মর্মান্তিক ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়ে দীপকের পরিবারকে সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন।
ভাইস চেয়ারম্যান সাজু আহম্মেদ লাল জানান, ইউএনও মাত্র কয়েকদিন আগে এসেছে। তিনি নতুন হওয়ায় গ্যারেজের ওয়াল, ছাদ সম্পর্কে তার কোন ধারনা নেই। গঙ্গাচড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সুশান্ত কুমার সরকার জানান, থানায় ইউডি মামলা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।
Spread the love
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us