শিরোনাম

শালিখার দেবিলা গ্রামের তৈয়ব বিশ্বাসের ৮৫ টি মেহগনী গাছ পুড়িয়ে দিয়ে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন করা হয়েছে

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : মঙ্গলবার, এপ্রিল ৬, ২০২১ ৭:০৮:০৯ অপরাহ্ণ
শালিখার দেবিলা গ্রামের তৈয়ব বিশ্বাসের ৮৫ টি মেহগনী গাছ পুড়িয়ে দিয়ে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন করা হয়েছে
শালিখার দেবিলা গ্রামের তৈয়ব বিশ্বাসের ৮৫ টি মেহগনী গাছ পুড়িয়ে দিয়ে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন করা হয়েছে

মুন্সী হাবিবুল্লাহঃমাগুরার শালিখা উপজেলার দেবিলা গ্রামের তবিবুর রহমান (তৈয়ব বিশ্বাসের) ১৪ শতক জমিতে প্রায় ১৫বছর আগে একধারে ২ সারি করে শতাধিক মেহগনী গাছ লাগানো ছিল।

ঐ জমির পার্শ¦বর্তী জমির মালিক আমিনুর রহমান(পিং.মৃত ঈমান আলী বিশ্বাস) হিংসাত্বকভাবে শত্রুতা করে বিগত ২২ মার্চ সোমবার তৈয়ব বিশ্বাসের গাছ্রে নিচেই আগুন লাগিয়ে পোড়ায়ে দেয়ার চেষ্টা করে। এতে তৈয়ব বিশ্বাস তার গাছ পোড়ানোর বিষয়ে আমিনুর রহমানের কাছে জানতে গেলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে হুমকি দিয়ে ২ দিন পর পুনরায় বাগানে আগুন ধরিয়ে গাছ পোড়ায়ে দেয়ার চেষ্টা করে।

পর পর ২ দিন বাগানে আগুন ধরিয়ে দেয়ার কারনে তৈয়ব বিশ্বাসের ৮৫ টি মেহগনী গাছ পুড়ে যায়। তাতে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে তবিবুর রহমান তৈয়ব বিশ্বাস শালিখা থানায় লিখিত অভিযোগ করে ন্যায্য বিচার প্রার্থনা করেন। শালিখা থানা কর্তৃপক্ষ বিষয়টি স্থানীয় সিংড়া পুলিশ ফাঁড়িকে সরেজমিনে তদন্তপুর্বক ব্যাবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়।

স্থানীয় সিংড়া পুলিশ ফাঁড়ি তদন্তপুর্বক ঘটনার আংশিক সত্যতা পায়। সিংড়া পুলিশ ফাঁড়ি তে জানতে চাইলে বলেন আমরা তদন্তে দেখেছি আমিনুর তার নিজের ক্ষেতের আঁখের পাতা পোড়াতে গিয়েই এ ঘটনার সুত্রপাত ঘটেছে। তাই উভয়কে ডেকে স্থানীয় ইউপি মেম্বরসহ মুরুব্বিদের নিয়ে বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করা হয়।

কিন্তু মেম্বরসহ মুরুব্বিদের সিদ্ধান্তে তৈয়ব বিশ্বাসকে দেড় লক্ষ টাকা ক্ষতিপুরন দেয়ার জন্য আমিনুর রহমানকে জানালে সে অস্বীকৃতি জানায়। পরবর্তীতে সিংড়া পুলিশ ফাঁড়ি কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে তৈয়ব বিশ্বাসকে তার মতানুযায়ী সিদ্ধান্ত নেয়ার পরামর্শ দেয় বলে তৈয়ব বিশ্বাস সাংবাদিকদের জানান

। এবিষয়ে ধনেশ্বরগাতী ইউপি চেয়ারম্যান বিমলেন্দু শিকদার এর কাছে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কোনকিছু অবগত নয় বলে জানান।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us