শিরোনাম

সেনাবাসের ঝাড়ুদারের সঙ্গে কলেজ ছাত্রীর প্রেম ও বিয়ে অতঃপর স্বামীর হাতে মৃত্যু

সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে : বুধবার, জুন ২, ২০২১ ১২:২৩:৫৯ পূর্বাহ্ণ
সেনাবাসের ঝাড়ুদারের সঙ্গে কলেজ ছাত্রীর প্রেম ও বিয়ে অতঃপর স্বামীর হাতে মৃত্যু
সেনাবাসের ঝাড়ুদারের সঙ্গে কলেজ ছাত্রীর প্রেম ও বিয়ে অতঃপর স্বামীর হাতে মৃত্যু

ফেসবুকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে বিয়ের পর কলেজছাত্রীকে হত্যা করে লাশ গুম করে দেওয়ার অভিযোগে সাকিব হোসেন হাওলাদার নামে এক ঝাড়ুদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের হরহর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।গ্রেফতার সাকিব হোসেন হাওলাদার (২৪) বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার নতুনচর জাহাপুর গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুল করিম হাওলাদারের ছেলে। তিনি বগুড়া জাহাঙ্গীরাবাদ সেনানিবাসের ঝাড়ুদার।

সাকিব হাওলাদার বলেন,  ফেসবুকে আমাদের প্রেমের সম্পর্কের পর গত ২৩ আগস্ট বগুড়ার একটি পার্কে বসে বিয়ের দিন ঠিক করি। ৩০ সেপ্টেম্বর নাজনীনের বাড়িতে বিয়ে হয়।

চলতি বছরের ২৪ মে বগুড়ার চারমাথা থেকে নাজনীনকে নিয়ে বরিশালে নিজের বাড়িতে আসি। আমার বাবা-মা বিয়ে সম্পর্কে কিছুই জানতেন না। তারা নানার বাড়িতে থাকায় নাজনীনকে বাড়িতে তুলি। তার আগে নাজনীনকে বলেছিলাম বাবা অসুস্থ। এ সুযোগে বাড়িতে গেলে সমস্যা হবে না।

নাজনীন বাড়িতে গিয়ে আমাদের টিনের ঘর এবং ওয়াশরুম দেখে আমার সঙ্গে খারাপ আচরণ করে। এমনকি আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। সেই সঙ্গে গরিব বলে গালি দেয়। এতে তার ওপর আমার প্রচণ্ড রাগ হয়। ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে বাড়ির পাশের সেপটিক ট্যাংকে লাশ ফেলে দিই।

২৬ মে বগুড়া সেনাবাহিনী থেকে তাকে কাজে যোগদান করতে বলা হয়। যোগদানের পরপরই আমার ইউনিট অফিসার জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ সময় পুরো ঘটনা খুলে বলি। আমার ভুল স্বীকার করি। এরপর আমাকে বগুড়া পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Facebook Comments

সাম্প্রতিক খবর

Contact Us